‘রোগাক্রাšত ও বৃদ্ধ ইয়াজউদ্দিনের জন্য কেবল করুণাই হয়’

শামসুদ্দীন আহমেদ:
সংসদে রাষ্ট্রপতি ড. ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদের ভাষণের ওপর গতকালও বেশ ক’জন সদস্য আলোচনা করেছেন। গত ক’দিনের মতো গতকালও কেউ তাকে ধন্যবাদ জানাননি। ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনার অংশ নিয়ে সদস্যরা যুদ্ধাপরাধীদের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা হত্যকারীদের বিচার কাজ দ্রুত সম্পন্নের দাবি জানান।

আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রাজ্জাক বলেন, সংবিধান লঙ্ঘন ও দেশকে ধ্বংসের পথে ঠেলে দেয়ার অপরাধে এই রাষ্ট্রপতিকে সম্পূর্ণভাবে ধন্যবাদ জানাতে পারছি না। তবে জাতির জনক হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্রদ্ধা জানানোর করণে তাকে একটু ধন্যবাদ জানাই। তিনি যেন এই সত্যটি চিত্তে ধারণ করেন এবং সবজায়গায় বলেন। তিনি যুদ্ধাপরাধীদের দ্রুত বিচারের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা হত্যার বিচার কাজ অবিলম্বে সম্পন্ন করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

আব্দুর রাজ্জাক আরো বলেন, আসনের জন্য বিরোধী দল সংসদ বয়কট করছে। তাদেরকে হিসাব অনুযায়ী একটি আসন বেশি দেয়া হয়েছে। তারপরও আলোচনা করলে ভেবে দেখতে পারতাম। তিনি বলেন, যে কোনো মূল্যে সংসদকে কার্যকর করতে হবে। এটা সরকারি ও বিরোধী দল উভয়েরই দায়িত্ব।

সরকার দলীয় সাংসদ নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, এই রাষ্ট্রপতি সংবিধানকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েছেন। এবিএম আবুল কাশেম বলেন, ইয়াজউদ্দিন বারবার সংবিধানের ওপর আঘাত করেছেন। জাসদের মঈনুদ্দীন খান বাদল বলেন, এই ভদ্রলোক (রাষ্ট্রপতি) যখন দোর্দণ্ড প্রতাপে ছিলেন তখনই বলেছিলাম তিনি মেরুদণ্ডহীন। রোগাক্রান্ত ও বৃদ্ধ এই মানুষটির জন্য এই মুহূর্তে কেবল করুণাই হচ্ছে।

Leave a Reply