প্রেসিডেন্ট ইয়াজউদ্দিন আজ বিদায় নিবেন

presidentদেশের ১৮তম রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদ আজ বৃহস্পতিবার বিদায় নেবেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে, রাষ্ট্রপতির পদ ছেড়ে দেয়ার পর তিনি গুলশানের ১৩৫ নম্বর রোড়ের নিজ বাসভবনে ফিরে যাবেন। নিয়ম অনুযায়ী তিনি আগামী ৩ মাস এসএসএফ-এর নিরাপত্তা পাবেন। এছাড়া প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি হিসাবে তিনি সরকারের পেনশন, চিকিৎসা ভাতা এবং ব্যক্তিগত কর্মকর্তাও পাবেন। সাধারণত রাষ্ট্রপতির পদ ছেড়ে দেয়ার পর এক মাস পর্যন্ত যে কেউ সরকারি বাসভবনে থাকতে পারেন। কিন্তু অধ্যাপক ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদ সে সুবিধা নিচ্ছেন না।

গতকাল বুধবার নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে তার বিদায়ী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। সকালে সেনাকুঞ্জে বিদায়ী এ রাষ্ট্রপতিকে তিন বাহিনীর পক্ষ থেকে গার্ড অব অনার দেয়া হয়। এর আগে তিনি ঢাকা সেনানিবাসে শিখা অনির্বাণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর তিনি সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী এবং নৌবাহিনীর সদর দপ্তরে যান। সেখানে তিনি সেনাপ্রধান জেনারেল মইন উ আহমেদ, বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল এস এম জিয়াউর রহমান এবং নৌবাহিনী প্রধান রিয়াল এডমিরাল জহির উদ্দিন আহমেদের সাথে বৈঠক করেন। এ তিন দপ্তরেই সংশ্লিষ্ট বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা রাষ্ট্রপতিকে স্বাগত জানান। পরে রাষ্ট্রপতিকে সেনাকুঞ্জে সম্মিলিত বাহিনীর পক্ষ থেকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। রাষ্ট্রপতি অভিবাদন গ্রহণ করেন।

এদিকে সেনানিবাস থেকে ফিরে এসে রাষ্ট্রপতি বঙ্গভবনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের এক বিদায়ী অনুষ্ঠানে যোগ দেন। অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতির সচিব মো: সিরাজুল ইসলাম, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মো: রুহুল আমিন, প্রেস সচিব আবদুল আউয়াল হাওলাদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদ ২০০২ সালের ৬ সেপ্টেম্বর দেশের ১৮তম রাষ্ট্রপতি হিসাবে শপথ নেন। ২০০১ সালে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ৪ দলীয় ঐক্যজোট ক্ষমতায় আসার পর অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত করা হয়। ২০০২ সালের ২১ জুন তিনি পদত্যাগ করেন। এরপর স্পীকার ব্যারিষ্টার জমিরউদ্দিন সরকার একই বছরের ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালন করেন।

Leave a Reply