মুন্সীগঞ্জে আওয়ামী লীগ বিএনপির সশস্ত্র মহড়া

মুন্সীগঞ্জের চরাঞ্চলের আধারায় আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে শনিবার আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কর্মীরা দফায় দফায় সশস্ত্র মহড়া দিয়েছে। এ সময় দুই গ্রুপের মধ্যে কয়েকবার ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এনিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোনো মুহূর্তে দু’দলের কর্মীরা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। শনিবার আধারা ইউপি চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা রহমত আলী মোল্লার গ্রুপ ও আওয়ামী লীগ নেতা আবু সরকার গ্রুপের কর্মীরা ভোর থেকে রামদা, বল্লম, লাঠিসোটা, আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে নিজ নিজ গ্রামে মহড়া দিতে থাকে। সকাল ৭টার দিকে আওয়ামী লীগ কর্মীরা সশস্ত্র অবস্থায় প্রতিপক্ষ বিএনপি কর্মীদের ধাওয়া দেয়। এতে বিএনপি কর্মীরা পিছু হটে যায়। আধঘণ্টা পর বিএনপি কর্মীরা সশস্ত্র অবস্থায় আওয়ামী লীগ কর্মীদের পাল্টা ধাওয়া দেয়। আধারা ইউনিয়নের আধারা গ্রামে বিএনপি অধ্যুষিত মোল্লাবাড়ি ও আওয়ামী লীগ অধ্যুষিত সরকারবাড়ি এলাকায় উভয় দলের শত শত কর্মী সশস্ত্র অবস্থান নেয়। এতে গ্রামবাসীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় কমপক্ষে পাঁচবার ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়।
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শহীদুল ইসলাম জানান, এলাকার আধিপত্য নিয়ে এ দুই গ্রুপ মহড়া দিলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। তবে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়ন করা হলে পরিস্থতি শান্ত হয়ে আসে।

Leave a Reply