মাওয়া-চর জানাজাত ফেরি রুটে দ্বিতীয় চ্যানেল

ঢাকা-মাওয়া-খুলনা মহাসড়কের মাওয়া-চর জানাজাত (কাওড়াকান্দি) ফেরি রুটে বৃহস্পতিবার মাওয়া-হাজরা-চর জানাজাত দ্বিতীয় চ্যানেল উদ্বোধন করা হয়। নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান সন্ধ্যা ৬টায় মাওয়া ঘাটে ফিতা কেটে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। পরে তিনি ভাষা শহীদ বরকত রো রো ফেরিতে করে চ্যানেলটি পারি দিয়ে মাওয়া থেকে চর জানাজাত ঘাটে যান। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব আঃ মান্নান হাওলাদার, বিআইডবিল্গউটিসির চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা কামাল, বিআইডবিল্গউটিএ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ফিরোজ আহমেদ, বিআইডবিল্গউটিসি পরিচালক বাণিজ্য লুৎফর রহমান, লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাহমুদুর রহমান হাবিব, মাওয়া বিআইডবিল্গউটিসির এজিএম আশিকুজ্জামান প্রমুখ।

চ্যানেলটি চালু হওয়ায় মাওয়া থেকে চর জানাজাত পেঁৗছতে এখন আগের চেয়ে সময়ও লাগবে ২০ মিনিট কম।
মাওয়া-হাজরা-চর জানাজাত চ্যানেলটি চালু হওয়ায় এখন দক্ষিণবঙ্গের মানুষ ১ ঘণ্টা ২০ মিনিটেই মাওয়া থেকে ফেরিতে চর চানাজাত পেঁৗছতে পারবে। চ্যানেলটি চালু হলেও আপাতত রো রো ও কে-টাইপ ফেরিগুলোই এখান দিয়ে চলতে পারবে। ১২০ ফুট প্রশস্ত এ চ্যানেল। ডাম্প ফেরি চলাচলের জন্য ২৪০ ফুট প্রস্থের প্রয়োজন হওয়ায় বর্তমানে এ চ্যানেলে এ জাতীয় ফেরিগুলো চলতে পারবে না। আগামী জানুয়ারি নাগাদ চ্যানেলটির ২৪০ ফুট প্রশস্ত করা হবে। তখন সব ধরনের ফেরিই চলাচল করতে পারবে।

Leave a Reply