শ্রীনগরে বিএনপির পাল্টাপাল্টি সম্মেলন ও কমিটি ঘোষণা

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা বিএনপির সম্মেলন গতকাল শনিবার পূর্বঘোষণা অনুযায়ী পাইলট উচ্চবিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয়নি। বিএনপির দুই পক্ষের বিরোধের কারণে অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কায় স্থানীয় প্রশাসন ওই মাঠ ও আশপাশে ১৪৪ ধারা জারি করে।

জানা যায়, গতকাল সকাল ১০টায় ওই বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক মমিন আলী দলের সম্মেলন আহ্বান করেন। যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন সম্মেলনের অনুমতি চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে আবেদন করেন। পরে একই সময় একই স্থানে সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহিম মৃধা ফারুক সমাবেশ ডাকেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুল লতিফ প্রথম আলোকে জানান, বিএনপির দুই পক্ষ একই সময় একই স্থানে সমাবেশ আহ্বান করায় শৃঙ্খলা বজায় রাখতে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

নিষেধাজ্ঞার কারণে বিএনপির দুই পক্ষই গতকাল পৃথক স্থানে কর্মসূচি পালন করে। কোলাপাড়ায় মমিন আলীর সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলার যুগ্ম আহ্বায়ক মো. আব্দুল হাই। সেখানে ১৪টি ইউনিয়নের অধিকাংশ কাউন্সিলরসহ কয়েক শ নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মমিন আলী উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও দেলোয়ার হোসেন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

দেলভোগে কমিউনিটি সেন্টারে উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সেলিম হোসেন খানের সভাপতিত্বে অপর সম্মেলন হয়।
প্রথম আলো

============================================================================

শ্রীনগরে বিএনপি’র সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ১৪৪ ধারা জারি
পাল্টাপাল্টি কমিটি গঠন

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে একই স্খানে বিএনপির দু’টি গ্রুপ সম্মেলন আহ্বান করায় শনিবার ওই স্খানে ১৪৪ ধারা জারি করে উপজেলা প্রশাসন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পৃথক দু’টি স্খানে পাল্টাপাল্টি কমিটি গঠন ও সমাবেশ করেছেন বিএনপি নেতৃবৃন্দ।

শ্রীনগর উপজেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেনের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে শ্রীনগর পাইলট উচ্চবিদ্যালয় মাঠটি দ্বিবার্ষিক কাউন্সিলের জন্য দু’দিন আগে বরাদ্দ দেয়া হয়। আকস্মিকভাবে গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টায় উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আবদুর রহিম মৃধা ফারুক একই স্খানে পাল্টা সম্মেলন করার আবেদন করলে উপজেলা প্রশাসন সহিংসতার আশঙ্কায় ওই স্খানে ১৪৪ ধারা জারি করে।

এ দিকে ১৪৪ ধারা জারির কারণে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের উপস্খিতিতে উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক মমিন আলীর কোনাপাড়া গ্রামের বাড়ির মাঠে সকালে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। মমিন আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন সাবেক উপমন্ত্রী ও জেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক আবদুল হাই, নজরুল ইসলাম বাচ্চু, আবদুল কুদ্দুস ধীরন, জাসাস নেতা বাবুল আহমেদ, জি এম মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ। সম্মেলনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মমিন আলীকে সভাপতি ও দেলোয়ার হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।

অপর দিকে শ্রীনগর থানা সংলগ্ন আনন্দ কমিউনিটি সেন্টারে বিএনপি’র অপর একটি অংশ পাল্টা সম্মেলন করে। উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটির সদস্য-সচিব সেলিম হোসেন খানের সভাপতিত্বে সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন আবদুর রহিম মৃধা ফারুক, তাজুল ইসলাম, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন উজ্জ্বল প্রমুখ। এ সম্মেলনে কেন্দ্রীয় শিক্ষক নেতা জাহাঙ্গীর খানকে সভাপতি ও সেলিম হোসেন খানকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭১ সদস্যবিশিষ্ট পাল্টা কমিটি গঠন করা হয়।
নয়া দিগন্ত
======================================================================

শ্রীনগরে বিএনপির সম্মেলন অনুষ্ঠানে ১৪৪ ধারা
পাল্টাপাল্টি কমিটি গঠন

শ্রীনগরে একই স্থানে বিএনপির দুটি গ্রুপ সম্মেলন আহ্বান করায় গতকাল শনিবার নির্ধারিত স্থানে ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পৃথক দুটি স্থানে পাল্টাপাল্টি কমিটি গঠন ও সমাবেশ করেছে বিএনপি।

জানা গেছে, শ্রীনগর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেনের আবেদনের প্রেক্ষিতে শ্রীনগর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠটি দ্বিবার্ষিক কাউন্সিলের জন্য দুদিন পূর্বে বরাদ্দ দেয়া হয়। এ লক্ষ্যে উপজেলা বিএনপি নির্ধারিত স্থানে কর্মসূচি পালন করতে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়। এদিকে আকস্মিকভাবে গত শুক্রবার রাতে উপজেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আব্দুর রহিম মৃধা ফারুক একই স্থানে পাল্টা সম্মেলন করার আবেদন করলে উপজেলা প্রশাসন সহিংসতার আশঙ্কায় ওই স্থানে ১৪৪ ধারা জারি করে।

এদিকে ১৪৪ ধারা জারির কারণে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের উপস্থিতিতে উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক আলহাজ মমিন আলীর কোলাপাড়া গ্রামের বাড়ির মাঠে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। মমিন আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন সাবেক উপমন্ত্রী ও জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক আব্দুল হাই, নজরুল ইসলাম বাচ্চু, আব্দুল কুদ্দুস ধীরন, বাবুল আহমেদ, জিএম মোস্তাফিজুর রহমান, শওকত আলী ভূঁইয়া দিলন, আব্দুস সালাম মোল্লা প্রমুখ। সম্মেলনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আলহাজ মমিন আলীকে সভাপতি ও মো. দেলোয়ার হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।

অপরদিকে শ্রীনগর থানাসংলগ্ন আনন্দ কমিউনিটি সেন্টারে বিএনপির অপর একটি অংশ পাল্টা সম্মেলন করে। উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব সেলিম হোসেন খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন আব্দুর রহিম মৃধা ফারুক, তাজুল ইসলাম, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন উজ্জ্বল, আলমগীর আলম, উপজেলা মাইলা দলের সাবেক সভানেত্রী জাহানারা বেগম প্রমুখ। সম্মেলনে কেন্দ্রীয় শিক্ষক নেতা জাহাঙ্গীর খানকে সভাপতি ও সেলিম হোসেন খানকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করে ৭১ সদস্যবিশিষ্ট পাল্টা কমিটি গঠন করা হয়।

ডেসটিনি

[ad#co-1]

Leave a Reply