ঘনকুয়াশা : মাঝ পদ্মায় শনিবার রাতে আটকা পড়ে ৯ ফেরি

ঘনকুয়াশার কারণে শনিবার রাতে মাওয়া-কাওড়াকান্দি ও দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরিসহ বিভিন্ন যান চলাচল ব্যাহত হয়েছে। গভীর রাতে সহস্রাধিক যাত্রীসহ মাঝ পদ্মায় আটকা পড়েছে ৯টি ফেরি। এদিকে দীর্ঘ সময় ফেরি সার্ভিস বন্ধ থাকায় মাওয়া, কাওড়াকান্দি, দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়ায় ৪টি পয়েন্টে আটকা পড়ে কয়েকশ যানবাহন। এ অবস্থায় যাত্রীদের অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

মুন্সীগঞ্জ ও মাদারীপুর প্রতিনিধি জানান, ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটে ঘনকুয়াশার কারণে ৯ ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ এবং পদ্মার মাঝ নদীতে লাশবাহী ট্রাকসহ অর্ধ-শতাধিক যানবাহন নিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা নোঙরে থাকে পাঁচটি ফেরি। শনিবার রাত ১টা থেকে গতকাল রোববার সকাল ১০টা পর্যন্ত কুয়াশার চাদরে ঢাকা পড়ে মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুট।

বিআইডবিল্গউটিসির ম্যানেজার আশিকুর রহমান জানান, শনিবার রাতে কাওড়াকান্দি ফেরিঘাট থেকে বাস-মিনিবাস ও প্রাইভেট কারসহ অর্ধশত যানবাহন বোঝাই করে মাওয়ার উদ্দেশে রওনা দিলে মাগুরখণ্ড চ্যানেলে রো রো ফেরি শাহ মখদুম ও ভাষা শহীদ বরকত এবং নাওডোবা-হাজরা পয়েন্টে ফেরি যমুনা ও থোবাল কুয়াশার মুখে মাঝ নদীতে নোঙরে থাকে। শনিবার রাত দেড়টায় মাঝ নদীতে নোঙরে থাকা ফেরি চারটি গতকাল রোববার সকাল ১১টার দিকে কুয়াশা কেটে গেলে মাওয়া ফেরিঘাটে পেঁৗছায়।

মানিকগঞ্জ ও গোয়ালন্দ প্রতিনিধি জানান, পদ্মা-যমুনার অববাহিকায় প্রচণ্ড কুয়াশার কারণে রোববার ভোর থেকে দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া নৌরুটে পাঁচ ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। এ সময় যানবাহন ও যাত্রী নিয়ে মাঝ নদীতে আটকে ছিল চারটি ফেরি। দীর্ঘ সময় ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় ঘাট পার হতে আসা অসংখ্য যাত্রী শীত ও কুয়াশায় প্রচণ্ড দুর্ভোগের শিকার হয় এবং দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া ঘাটে যানজট দেখা দেয়।

বিআইডবিল্গউটিসির আরিচা শাখার ম্যানেজার আশরাফ উলল্গাহ খান জানান, ভোরের দিকে প্রচণ্ড কুয়াশা পড়তে শুরু করে। ভোর ৫টার দিকে কুয়াশার তীব্রতা বেড়ে গেলে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। এ সময় কুয়াশার কারণে যাত্রী ও যানবাহন নিয়ে দৌলতদিয়া থেকে পাটুরিয়া আসার পথে মাঝ নদীতে আটকে পড়ে ফেরি এনায়েতপুরী, শাহ আলী, শাহ জালাল ও আমানত শাহ। সকাল ১০টার দিকে কুয়াশা কেটে গেলে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়। দীর্ঘ সময় ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় পাটুরিয়া ও দৌলতদিয়া ঘাটে যানজট দেখা দিয়েছে।

[ad#co-1]

Leave a Reply