ইন্টারনেটের উচ্চমূল্য ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অন্তরায়

মহিবুর রহমান
আমাদের ১৫ কোটি মানুষের দেশে বর্তমানে মাত্র ৫০ লাখের বেশি পারসোনাল কম্পিউটার ব্যবহৃত হচ্ছে এবং প্রায় ৩০ লাখ ইন্টারনেট ইউজার প্রতিদিন নানাভাবে ইন্টারনেট সেবা গ্রহণ করছে। ইন্টারনেট হচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অন্যতম বড় হাতিয়ার তাই বর্তমান সরকার ওয়াইম্যাক্সের মাধ্যমে সমগ্র বাংলাদেশে উচ্চগতির ইন্টারনেট সেবা সবার কাছে পৌঁছে দিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে চাচ্ছেন। কিন্তু একদিকে ইন্টারনেট সেবা গ্রহণ করতে আহ্বান জানানো হচ্ছে অন্যদিকে উচ্চমূল্য দিয়ে জানানো হচ্ছে অঘোষিত নিষেধ যা রীতিমতো পরস্পরবিরোধী।

গত ১ জুন থেকে ওয়াইম্যাক্সের যাত্রা শুরু হওয়ার কথা ছিল, কিছুটা বিলম্ব হলেও পরে এর সেবা কার্যক্রম শুরু হয়েছে কিন্তু অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও সত্য, যে জনগণকে নিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের কথা বলা হচ্ছে সেই জনগণের সামর্থ্যই আমলে নেয়া হয়নি। ইন্টারনেট ব্যবহারের চার্জ এখনো সাধারণ জনগণের নাগালের মধ্যে নিয়ে আসা হয়নি।

মোবাইল ফোনের কল্যাণে আজ থেকে প্রায় তিন বছর আগে ইন্টারনেট সেবা সবার কাছে পৌঁছে গেছে। মোবাইল ফোনের কভারেজ আছে এমন যে কোনো গ্রামে ইন্টারনেট ব্যবহার সম্ভব, প্রথম দিকে আমাদের গ্রামসহ আশপাশের গ্রামে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে দেখেছি কিন্তু এখন ব্যাপক আগ্রহ থাকা সত্ত্বেও তা থেমে গেছে কারণ ইন্টারনেটের উচ্চমূল্য। বর্তমানে ভ্যাটসহ ১ কেবি=০.০২৩ টাকা অর্থাৎ প্রতি মেগাবাইটের মূল্য ২৩.৫৬ টাকা, আনলিমিটেড ৯৭৭.৫ টাকা এবং ওয়াইম্যাক্সের মাধ্যমে ১২০০+১৫% ভ্যাট=১৩৮০ টাকায় আনলিমিটেড ইন্টারনেট সেবা পাওয়া যাচ্ছে কিন্তু প্রশ্ন হলো, কতোজন ব্যক্তি বা পরিবারের পক্ষে মাসে মাসে এতো উচ্চ মূল্য দিয়ে ইন্টারনেট সেবা গ্রহণ করা সম্ভব। জনগণের সামর্থ্য বিবেচনা না করে শুধু ইন্টারনেট সেবা দিলেই যদি সবাই ইন্টারনেট নেটওয়ার্কের আওতাভুক্ত হতো তাহলে বিগত তিন বছরেই দেশের সব কম্পিউটার ইন্টারনেটে যুক্ত হওয়ার কথা। পুরো দেশ তথা গ্রামের কথা বাদই দিলাম খোদ রাজধানীতে এখনো অগণিত কম্পিউটার ইন্টারনেট নেটওয়ার্কের বাইরে যদিও যে কেউ ইচ্ছা করলেই ব্রডব্যান্ড অথবা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কয়েক কয়েক মুহূর্তের মধ্যে ইন্টারনেট সংযোগ নিতে পারেন। সরকারের নীতিনির্ধারকদের বলছি, ইন্টারনেটের সম্প্রসারণে যতোই উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করা হোক না কেন, তাতে আশানুরূপ সাড়া মিলবে না যতোক্ষণ পর্যন্ত সেবা গ্রহণে গ্রাহকদের সামর্থ্য আমলে নেয়া না হয়।

সরকারি তিতুমীর কলেজ, ঢাকা।
mahibbd@gmail.com

[ad#co-1]

Leave a Reply