মুন্সীগঞ্জে অর্ধশতাধিক দোকানপাট ভাঙচুর

কাজী দীপু, মুন্সীগঞ্জ: মুন্সীগঞ্জ সদরের সিপাহিপাড়া এলাকায় গতকাল সোমবার সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে কাঁচাবাজার ও মাছের আড়তসহ অর্ধ-শতাধিক দোকানপাট ভাঙচুর করেছে। ঘটনার পর মাছ ও কাঁচা মালামাল বেঁচাকেনা বন্ধ রয়েছে।

সন্ত্রাসী হামলায় ওই বাজারের মাছের আড়ত ও কাঁচা তরকারির আড়ত ও মুদির দোকানের স্থাপনা লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে। এতে ১০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা দাবি করেছেন। চিহ্নিত সন্ত্রাসী সিটি রাসেলের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা বাজারের দোকানপাটে এই হামলা চালায় বলে বাজারটির মালিক শামসুদ্দিন দাবি করেছেন। বাজারের পার্শ্ববর্তী একটি পুকুরের মালিকানা বিরোধের জের ধরে সন্ত্রাসীরা ওই ভাঙচুর তাণ্ডব চালায় বলে জানা গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত দোকানি মামুন জানান, তার মুদি দোকানের পিঁয়াজ-রসুনসহ মালামাল লণ্ডভণ্ড করে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। তার মতো বাজারের সব ব্যবসায়ীদের একই অবস্থা হয়েছে। ব্যবসায়ীরা জানায়, গত সোমবার ভোরে বাজার সংলগ্ন সিপাহিপাড়া মসজিদে অনেক দোকানি ফজরের নামাজ আদায় করার সময় সন্ত্রাসীরা সেখানে হামলা করে ২০টি মাছের আড়ত, ২০টি কাঁচা তরিতরকারীর আড়ত ও ১২-১৪টি মুদি দোকান ভাঙচুর ও লুটপাটের তাণ্ডব চালায়। পরে ব্যবসায়ীরা গিয়ে দেখেন তাদের দোকানপাট সব লণ্ডভণ্ড। এ ঘটনায় কমপক্ষে ১০ লাখ টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন। ক্ষতিগ্রস্ত দোকানিরা জানান, তারা এই বাজারে ২৬ শতাংশের সম্পত্তির ওপর নির্মিত মাছের ও শাক-সব্জিসহ কাঁচা তরি-তরকারীর আড়তে নির্বিঘেœই ৩০ বছর ধরে ব্যবসা করছিলেন। সিপাহিপাড়া এলাকার জনৈক শামসুদ্দিনের কাছ থেকে ভাড়া নিয়ে তারা ওই খানে মাছ-কাঁচা বাজার ও মুদির দোকানের স্থাপনা গড়ে তোলেন।

[ad#co-1]

Leave a Reply