মুন্সীগঞ্জে পোকার আক্রমণে বেগুন চাষের ব্যাপক ক্ষতি

কাজী দীপু, মুন্সীগঞ্জ: মুন্সীগঞ্জে পোকার আক্রমণে বির্পযস্ত হয়ে পড়েছে বেগুন চাষ। জেলা বিভিন্ন স্থানে আবাদকৃত অধিকাংশ জমিতে মরে যাচ্ছে বেগুন গাছ। আবার অনেক গাছের বেগুনে ধরেছে পচন। বেগুন আবাদ করতে জমিতে কৃষকের যে পরিমাণ টাকা খরচ হয়েছে তার বেশিরভাগই লোকসান গুনতে হচ্ছে কৃষকদের।

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার রামপাল, বজ্রযোগনি, সুখবাসপুর, ধলাগাঁও, দালালপাড়া, দেওসারসহ ভিবিন্ন এলাকায় বেগুনের চাষাবাদ হয়েছে বেশি। এ সকল এলাকা ঘুরে দেখা গেছে অধিকাংশ জমির পুরো ক্ষেতেই বেগুন গাছ মরে গেছে পোকার আক্রমণে। যাও আছে সে সকল গাছের বেগুনে দেখা দিয়েছে পচন রোগ। এতে হতাস হয়ে পরেছেন কৃষকরা। তাদের জমিতে আবাদ করতে যে পরিমাণ টাকা খরচ হয়েছে তার অর্ধেকও উঠে পাওয়া যাবে না বলে আশঙ্কা কৃষকদের। দালালপাড়া গ্রামের বেগুন চাষী ছায়েম দালাল বলেন, তার জমিতে বেগুন চাষ করে সে লোকসানের মুখে পড়েছে। গাছের পাতায় পোকা ধরে তা বেগুনে প্রর্যন্ত ছরিয়ে পড়ে এবং বেগুনে পচন ধরে। দেওসার এলাকার বেগুন চাষী তোফাজ্জল হোসেন জানান বেগুন ক্ষেতে প্রচুর পরিমাণ কীটনাশক ব্যবহার করেও কোনো সুফল পাচ্ছে না।

বেগুন চাষী নুরু মিয়া জানান, তাদের ক্ষেতের পোকার আক্রমণের কারণে ব্যাপক ক্ষতি হলেও কৃষি বিভিগের কোনো র্কমর্কতা তাদের পাশে এসে দাঁড়ায়নি। জেলায় কি পরিমান বেগুন চাষ হয়েছে বা ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিয়ে সঠিক কোনো পরিসংখ্যান নেই স্থানীয় কৃষি বিভাগে।

এ ব্যাপারে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক এ কে এম আমিনুর রহমান বলেন, এই জেলায় তেমন কোনো বেগুন চাষ হয়নি। যাও হয়েছে তা মানুষের বাড়ির আঙ্গিনায় নিজেদের খাওয়ার জন্য কিছু চাষাবাদ করেছে। অন্যান্য বছর এ সব জমি থেকে বেগুনের ভালো ফলন পাওয়া গেলেও চলতি বছরে লোকসান হবে বলে জানা গেছে।

[ad#co-1]

Leave a Reply