৯৬ লাখ টাকা প্রদান করে মৃত্যুদণ্ড থেকে রেহাই পেল ৬ প্রবাসী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও চট্টগ্রাম ৭ আসনের সংসদ সদস্য জাসদ নেতা মঈন উদ্দিন খান বাদলের প্রচেষ্টায় মৃত্যুদণ্ড থেকে রেহাই পান ৬ জন প্রবাসী যুবক । প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ও এমপি বাদলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় সুদুর আবুধাবীতে মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত ৬ জন বাংলাদেশী যুবকের জন্য প্রায় ৯৬ লাখ টাকা সরকারিভাবে প্রদান করায় এই মৃত্যুদণ্ড থেকে রেহাই পায় তারা। মৃত্যুদণ্ড থেকে রেহাই পাওয়া প্রবাসীরা হলেন মুন্সিগঞ্জ জেলার ফরহাদ, মো. মুসা, মো. ফারুক, মো. মহসিন, শরীয়তপুর জেলার মো. শামসুউদ্দিন এবং চট্টগ্রামের বোয়ালখালীর মো. নাজিম উদ্দিন।

জানা যায়, ২০০৮ সালের জুলাই মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবীতে উলেখিত প্রবাসী বাঙ্গালীদের সাথে কয়েকজন পাকিস্তানীদের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঘটে। ৭১’ এর স্বাধীনতা যুদ্ধ ইস্যু নিয়ে সংঘটিত এই সংঘর্ষে এক পাকিস্তানী নাগরিক নিহত হয়। এতে আরব আমিরাত সরকার ৯০ জন বাঙ্গালীকে প্রেফতার করে।

পরে সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে আবুধাবী কোর্টে বিচার প্রক্রিয়া শেষে উক্ত ৬ প্রবাসী বাঙ্গালীকে দোষী সাবস্ত্য করে আদালত মৃত্যুদণ্ড প্রদান করেন। দেশে এখবর জানার পর চট্টগ্রামের বোয়ালখালীর সারোয়াতলী ইউনিয়নের মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত নাজিম উদ্দিনের পিতা বয়োবৃদ্ধ ছিদ্দিক আহমদ পুত্রশোকে দিশাহারা হয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যনের সাথে দেখা করেন। ওখানে উপস্থিত থাকা স্থানীয় জাসদ নেতা হামিদুল হক সিকদার ও আবদুল মান্নান সওদাগর এঘটনা বর্তমান এমপি জাসদ নেতা মঈন উদ্দিন খান বাদলকে জানান। ওই সময় জনাব বাদল স্থানীয় বেঙ্গুরা ষ্টেশনে এলাকাবাসী উদ্যোগে এক বিশাল সমাবেশ করে তৎকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দৃষ্টি আকর্ষনের চেষ্টা করেন। তৎকালীন স্বরাষ্ট্র উপদেষ্টা ও পররাষ্ট্র উপদেষ্টার সাথে যোগাযোগ করেও কোন সাহায্য পাননি। পরবর্তীতে জনাব বাদল নিজ উদ্যোগে আরব আমিরাতের বাংলাদেশ মিশনে যোগাযোগ করে বাংলাদেশী নাগরিক ব্যারিষ্টার নাছরিন জাহানের মাধ্যমে আবুধাবীর সুপ্রিম কোর্টে ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করান। দীর্ঘ আপিল শুনানী শেষে ২০০৮ সালের ১৮ আগষ্ট আদালত প্রত্যেককে তিনবছরের কারাদণ্ড ও সেদেশের আইন অনুযায়ী ‘বাড মানি’ বাবদ ১৫ লাখ ৭০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন।

বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হয় নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এতে চট্টগ্রাম ৭ আসন থেকে মহাজোট নেতা মঈন উদ্দিন খান বাদল এমপি নির্বাচিত হন। ২০০৯ সালে তিনি ঘটনাটি প্রবাসী কল্যাণ ও শ্রম মন্ত্রী ইঞ্জি. মোশারফ হোসেনকে জানান। সরকারের পক্ষ থেকে তাদের জরিমানা বাবদ ১৫ লাখ ৭০ হাজার টাকা করে মোট ৬ জনের প্রায় ৯৫ লাখ টাকা প্রদান করার অনুরোধ জানান । পরে এমপি বাদল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথেও দেখা করে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন। প্রধানমন্ত্রী দেশের ভাবমূর্তি ও মানবিক দিক বিবেচনা করে সরকারের পক্ষ থেকে ওই ৯৫ লাখ টাকা প্রদানের নির্দেশ দেন এবং ইতিমধ্যে সংশিষ্ট মন্ত্রনালয়ের মাধ্যমে ওই টাকা আবুধাবীতে সংশিষ্ট দপ্তরে প্রেরণ করা হয়। চলতি মাসেই এমপি বাদল আবুধাবীতে গিয়ে মুক্তির অপেক্ষায় থাকা ওই ৬ জন প্রবাসী বাংলাদেশী যুবককে সরকারের প্রতিনিধি হয়ে দেশে ফিরিয়ে আনবেন বলে এমপি বাদল এ প্রতিবেদককে জানান।

[ad#co-1]

Leave a Reply