মুন্সীগঞ্জে ভূমিহীন মুক্তিযোদ্ধার অভিযোগ

লৌহজং উপজেলার খিদিরপাড়া এলাকার বাসিন্দা এক ভূমিহীন মুক্তিযোদ্ধা ফজল শেখ গত বৃহস্পতিবার শহরের ইউরো ফাস্টফুডে সাংবাদিক সম্মেলন করে তার এবং পরিবারের উপর সন্ত্রাসীদের হামলা, হুমকি, নির্যাতন ও মিথ্যা মামলাসহ বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করার বর্ণনা দেন।

লিখিত বক্তব্যে ফজল শেখ জানান, কিছুদিন আগে তার শ্বশুরের জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সন্ত্রাসীরা তার এবং পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে ৯ জনকে মারাত্মক জখম করে। পরে এ ঘটনায় লৌহজং থানায় মামলা করার জন্য তার শ্যালক হাজী নুরুল ইসলাম বাদি হয়ে আবেদন করলেও থানা পুলিশ রহস্যজনক কারণে ৩ দিন পর গত ৯ মার্চ থানায় মামলা এন্ট্রি করে। এছাড়া তার বিরুদ্ধেও একটি পাল্টা মামলা দায়ের করেন প্রতিপক্ষের লোকজন। মামলা দায়েরের পর সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে এবং মামলা তুলে নেয়ার জন্য উল্টো হুমকি দিচ্ছে। পুলিশ রহস্যজনক কারণে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করছে না।

দিনমজুর হাসেম শেখের ভূমি না থাকায় পরিবার পরিজন নিয়ে তিনি শ্বশুর বাড়ি খিদিরপাড়ায় বসবাস করছেন। তার শ্বশুরের পরিবারের লোকজন বর্তমানে ঢাকায় বসবাস করার কারণে তিনিই বাড়ির কেয়ারটেকার হিসেবে বাড়িতে থাকেন। জমি নিয়ে তার শ্বশুরের সাথে পার্শ্ববর্তী হাসেম দেওয়ান পক্ষে লোকজনের দীর্ঘদিনের দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। তিনি আরও বলেন, তার কিশোরী এক কন্যাকে বিদ্যালয়ে যাওয়ার সময় সন্ত্রাসীরা বিভিন্ন ভাবে উত্ত্যক্ত করার কারণে বেশকিছু দিন ধরে পড়াশুনা বন্ধ করে দিতে তিনি বাধ্য হয়েছেন। সাংবাদিক সম্মেলনে ফজল শেখ তার পরিবারকে সন্ত্রাসীদের হাত থেকে রক্ষা এবং হামলার সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানান।

[ad#co-1]

Leave a Reply