মুন্সীগঞ্জে সাড়ে ৫ লাখ টাকা ছিনতাই

মুন্সীগঞ্জ সদরের রতনপুরে সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা ছিনতাই হয়েছে। ছিনতাই করে পালিয়ে যাওয়ার সময় গ্রামবাসীর গণপিটুনিতে চার ছিনতাইকারী গুরুতর আহত হয়। তবে ছিনতাইকারী দলের আরেক সদস্য টাকা নিয়ে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

ছিনতাইকারীদের গতিরোধ করতে গিয়ে গিয়াসউদ্দিন নামে এক গ্রামবাসী দায়ের কোপে গুরুতর আহত হন। তাকে একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। আহত ছিনতাইকারীদের মধ্যে দুজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্য দুজনকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়।

জানা যায়, নাসির ও ওয়াহিদ নামে দুই ব্যক্তি মোটরসাইকেলে পঞ্চসার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমানের বাড়ি থেকে ৫ লাখ ৫২ হাজার টাকা নিয়ে মুক্তারপুর সেতুর টোল কাউন্টারে যাচ্ছিলেন। পথে পঞ্চসার চৌরাস্তায় তারা ছিনতাইকারীদের কবলে পড়েন। ছিনতাইকারীরা সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে নাসির ও ওয়াহিদের গতিরোধ করে এবং পিস্তলের মুখে তাদের কাছে থাকা টাকা কেড়ে নেয়। এরপর ছয় রাউন্ড গুলি ছুড়ে পালিয়ে যেতে উদ্যত হয়।

নাসির ও ওয়াহিদের চিৎকারে স্থানীয় জনগণ ছিনতাইকারীদের পিছু নেয়। এক পর্যায়ে রতনপুর আনসার ক্যাম্পের সামনে এলাকাবাসী চার ছিনতাইকারীকে আটক করে গণধোলাই দেয়। তবে অন্যজন ছিনতাইকৃত টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে আহত তিন ছিনতাইকারীর নাম জানা গেছে। তারা হলো সবুজ (১৮), আল-আমিন (২৫) ও রমজান (২৬)। টাকা নিয়ে পালিয়ে যাওয়া ছিনতাইকারীর নাম খসরু বলে প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়।

[ad#co-1]

Leave a Reply