মুন্সীগঞ্জে টাকার বিনিময়ে মেডিকেল সার্টিফিকেট প্রদান

কাজী দীপু, মুন্সীগঞ্জ: ২০০ ও ১০০ টাকার বিনিময়ে গত বুধবার মুন্সীগঞ্জ সিভিল সার্জন অফিসে ছবি সত্যায়িত করে মেডিকেল সার্টিফিকেট দেয়া হয়েছে। প্রায় ৩ শতাধিক ব্যক্তিকে মেডিকেল সার্টিফিকেট দিয়ে অবৈধ উপায়ে অর্ধলক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়েছে।

এমএলএসএস পদের কর্মচারীরা প্রকাশ্যেই এই টাকা লেনদেন করেছেন। কর্মরত ডাক্তারদের পারিশ্রমিক বাবদ এই টাকা নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন টাকা উত্তোলনকারীরা।

তবে টাকা নেয়া অবৈধ দাবি করে সংশ্লিষ্ট সূত্রটি জানান, এ নিয়ে ৪ দিন মেডিকেল সার্টিফিকেট দেয়া হয়। বিআরটিএ অফিসে ড্রাইভিং লাইসেন্স করার শেষ তারিখ থাকায় মেডিকেল সার্টিফিকেটের জন্য সকাল থেকেই প্রায় ৩ শতাধিক গাড়ি চালকদের ভীড় পড়ে মুন্সীগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয়ে।

এতে কর্মরত মেলিকেল অফিসার মেহেদী হাসান ও মাসুদ রেজাকে সাহায্য করতে জেনারেল হাসপাতাল থেকে আরো ৩ ডাক্তারকে নেয়া হয়। এ সময় মেডিকেল সার্টিফিকেট ও সত্যায়িত বাবদ জনপ্রতি ২০০ টাকা করে আদায় করে এমএলএসএসরা। এতে বাকবিতণ্ডা হলে সমঝোতার মাধ্যমে ১০০ টাকা করে দেয়ায় সিদ্ধান্ত হয়।

এ খবর পেয়ে এ প্রতিবেদক সিভিল সার্জন কার্যালয়ে গিয়ে এমএলএসএসদের গাড়ি চালকদের কাছ থেকে প্রকাশ্যে টাকা নিতে দেখতে পান। এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই এমএলএসএস জানান, এই টাকা ডাক্তারদের পারিশ্রমিক হিসেবে দেয়া হবে। সিরাজদিখানের কাজল দেওয়ান ও মাওয়া এলাকার মহসিন মিয়া জানান, মেডিকেল সার্টিফিকেট বাবদ তাদের কাছ থেকে ১০০ টাকা করে নেয়া হয়েছে।

আসাদ নামের এক গাড়ি চালক জানান, সকাল থেকে ২০০ টাকা আদায় করা হচ্ছিল। এ নিয়ে বাকবিতণ্ডা হওয়ায় এখন ১০০ টাকা করে নিচ্ছে। পারিশ্রমিক হিসেবে টাকা নেয়া হচ্ছে প্রশ্ন করা হলে মেডিকেল অফিসার মেহেদী হাসান জানান, তিনি এ বিষয়ে কিছুই জানেন না।

[ad#co-1]

Leave a Reply