শিশু তৌকির হত্যা মুন্সীগঞ্জে ঘাতকদের ফাঁসি চান এলাকাবাসী

চরাঞ্চলের ফুলতলা গ্রামের নিষ্পাপ শিশু তৌকির আহমেদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সর্বত্র ঘাতকদের ফাঁসির দাবি জোরদার হয়ে উঠেছে। ৫ ঘাতকের ফাঁসির দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠেছে ফুলতলা গ্রাম। গতকাল সকালে সরেজমিন ওই গ্রামে গেলে আবাল-বৃদ্ধ-বনিতার শুধু একটিই দাবি, ৫ ঘাতকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, ফাঁসি। গ্রামবাসীর চাওয়া শুধু ঘাতকদের ফাঁসি। শুক্রবার সকালে তৌকিরের বাড়িতে গেলে গ্রামের শত শত নারী-পুরুষ সমকালকে জানান, ঘাতকদের ফাঁসি চাই।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় রিমান্ডে থাকা ঘাতক রবিউল (২২), হান্নান (২১), আবুল (২৬), আনোয়ার (২৪) ও ময়নাল (২৬) পুলিশের কাছে খুনের কথা স্বীকার করেছে। রিমান্ডে ঘাতকদের দেওয়া তথ্যাবলি রেকর্ড করেছে পুলিশ। এ সময় শিশু তৌকির হত্যাকাণ্ডের লোমহর্ষক বর্ণনা দেয় ৫ ঘাতক। অন্যদিকে গ্রামবাসী পুলিশের কাছে খুনিদের সম্পর্কে তথ্য দেওয়ায় বৃহস্পতিবার রাতে ঘাতকদের পক্ষের লোকজন মাসুদা বেগম (২৮) নামে এক মহিলাকে পেটায়।

নিজ বাড়ি থেকে নিহত তৌকিরের বাড়িতে আসার পথে দুর্বৃত্ত রবিউলের লোকজন ওই মহিলাকে মারধর করে। এতে গুরুতর অবস্থায় তাকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তৌকিরের বড় চাচি রানু বেগম জানান, আজ কুয়েত ফিরে যাওয়ার কথা ছিল তৌকিরের বাবা নাসির বেপারীর। কিন্তু ছেলে হারানোর কারণে কুয়েত যাওয়া হচ্ছে না তার।

[ad#co-1]

Leave a Reply