ভূয়া ভোটার, বৈধ প্রার্থী !

ভূয়া ভোটার, বৈধ প্রার্থী ! হ্যা, এমন অবিশ্বাস্য ঘটনাই ঘটেছে মুন্সিগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি উপজেলায়। এই অঞ্চলের সর্ববৃহৎ বিদ্যাপীঠ সোনারং পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে ঘটেছে এমনটি। মাজেদা নামের একজন এই নির্বাচনের মহিলা সংরক্ষিত আসনে প্রার্থী হয়েছেন। কিন্তু তার কোন সন্তান বিদ্যালয়টির শিক্ষার্থী নয়। তিনি যে মাজেদা নামের ভোটার (নং ৩৯১) হিসাবে দাবী করেছেন। তার সন্তান সালাম খাঁ এই বিদ্যালয়ের অস্টম শ্রেনীর ছাত্র। বাস্তবে সালাম খাঁর পিতা-মাতা নেই। খসড়া ভোটার তালিকায়ও সালাম খাঁর মা মৃত মাজেদা হিসাবে ছিল। চূড়ান্ত ভোটার তালিকায় মৃত শব্দটি বাদ দেয়া হয় রহস্যজনক কারণে।

এর পেছনে প্রিজাইডিং অফিসার (উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা) মাহমুদুর রহমানের কারসাজির অভিযোগ উঠেছে। তবে প্রিজাইডিং অফিসার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এটি ভূলবশতঃ হয়েছে। তবে মাজেদা প্রার্থী হওয়ার পর বিষয়টি জানাজানি হলেও কিভাবে তাঁকে বৈধ (ব্যালেট নং ৩) প্রার্থী ঘোষণা করা হলোও তার সদুত্তর দিতে পারেনি। তাই ভূয়া ভোটার হয়েও মাজেদা এখন বৈধ প্রার্থী হিসাবে ভোট প্রার্থনা করে চলেছেন। এব্যাপারে বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বৈধ প্রার্থী ঘোষিত হওয়ায় অবৈধ ভোটার সত্ত্বেও তাঁর (মাজেদা) নামে ব্যালেট পেপারও ছাপা হয়ে গেছে। বুধবার (৬ সেপ্টেম্বর) বিদ্যালয়টির পরিচালনা পরিষদের নির্বাচন। এই নির্বাচনে ১১১৫ জন অভিভাবক ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাবেন। মাজেদাসহ সংরক্ষিত মহিলা প্রার্থী সংথ্যা ৩। এই নির্বাচনে মোট প্রার্থী সংখ্যা ৯।

মোহাম্মদ সেলিম, মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি। ০১৯১১১৪২৬৭০

[ad#co-1]

Leave a Reply