শ্রীনগর বাড়ৈখালীতে আবার ইভটিজিং

ইভটিজার গ্রেফতার
শনিবার শ্রীনগর উপজেলার বাড়ৈখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী রোকসানা আক্তার শাম্মী (১৩) ইভটিজিংয়ের শিকার হয়েছে। পুলিশ ইভটিজার উজ্জ্বল পাইকে (২২) গ্রেফতার করেছে। গত ১১ আগস্ট একই বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী হাসনা রহমান সিনথিয়া ইভটিজিংয়ের শিকার আত্মহননের পথ বেছে নেয়। ব্যাপক আলোচিত এই কলঙ্কের দাগ না মুছতেই আবার এখানে ইভটিজিংয়ে তোলপাড়ের সৃষ্ট হয়েছে।

শ্রীনগর থানার ওসি শাখাওয়াত হোসেন জানান, সকালে স্কুলে যাওয়ার পথে শাম্মীকে ইভটিজার উজ্জ্বল পাইক হাতটেনে ধরে শালীনতা হানির চেষ্টা চালায়। স্কুলের প্রায় কোয়াটার কিলোমিটার দূরে বাড়ৈখালী হাকিম ডাক্তারের বাড়ির কাছের রাস্তার এই ঘটনায় কোনক্রমে শাম্মী দৌড়ে পাশের এক বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে পরিবারকে খবর দেয়। লোকজন ইভটিজারকে ধরার চেষ্টা করলে দৌড়ে পালায়। এই খবর ছড়িয়ে পড়লে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ গোটা এলাকায় অসন্তোষ দেখা দেয়।

শাম্মীর প্রবাসী পিতা ওয়ারিসুল আলম বাদী হয়ে এই ঘটনায় সন্ধ্যায় শ্রীনগর থানায় মামলা দায়ের করেছে। স্থানীয় শ্রীধরপুর গ্রামের হেকমত আলীর পুত্র উজ্জ্বল পাইক বেশ কিছুদিন ধরে শাম্মীকে উত্ত্যক্ত করছিল। বাড়ৈখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইউসুফ আলী জানান, ঘটনাটি অবগত হওয়া মাত্র তিনি প্রশান অবগত করেন। পরে পুলিশ এসে অনেক চেষ্টার পর ইভটিজার উজ্জ্বল পাইককে স্থানীয় নিজ বাড়ি থেকে পাকড়াও করে। সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় ওসি জানান, ইভটিজার গ্রেফতারের পর এলাকায় পরিস্থিতি এখন শান্ত।

[ad#co-1]

Leave a Reply