শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা উদযাপন

রাহমান মনি
গত ৩১ অক্টোবর ২০১০ ইতাবাসির সিমিজু চিইকি সেন্টারে প্রবাসীরা শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা উৎসব পালন করেছে। এটি বৌদ্ধধর্মাবলম্বীদের বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব। এই মহতী আয়োজনে চারজন ভিক্ষুকে আমন্ত্রণ জানানো হয়, যার ৩ জন শ্রীলঙ্কান হলেও জাপানে অবস্থান করছেন এবং জাপানি ভাষায় পারদর্শী আর অন্যজন ভারতীয়। তিনি কলকাতার এবং বাংলার বাঙালি। পূজারিরা সকাল ৯টা থেকে বিভিন্ন আয়োজনে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। বুদ্ধপূজা শুরু হয় সকাল ১০টায়। জ্ঞানবিরীয় বৌদ্ধবিহার জ্ঞানালংকার বৌদ্ধসংঘের প্রতিষ্ঠাতা ভিক্ষু পূজায় ভিক্ষুদের নেতৃত্ব দেন এবং পূজারিদের উদ্দেশে ধর্মীয় বয়ান ও অন্যান্য আচার সম্পন্ন করেন।

আলোচনায় অংশ নেন প্রবীর বিকাশ সরকার, কাজী ইনসানুল হক, মীর রেজাউল করীম রেজা, খন্দকার আসলাম হীরা, সুখেন ব্রহ্ম, অজিত বড়–য়া, ছালেহ্ মোঃ আরিফ, আব্রাহাম চৌধুরী, তাজউদ্দিন রবি, দূতাবাসের ইকোনোমিক মিনিস্টার একেএম মনজুরুল হক, সুজুকি ক্যাসুজি, ক্ষমতাসীন দলের সংসদ সদস্য আকিরা ইশিই এবং টোকিও বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত একেএম মজিবুর রহমান ভূঁইয়া।

জেলহত্যা দিবস পালিত
জাপান প্রবাসীরা যথাযোগ্য মর্যাদায় জেলহত্যা দিবস পালন করে। ৩ নবেম্বর জাপানে সংস্কৃতি দিবস হিসেবে সরকারি ছুটির দিন থাকে। প্রবাসীরা কাকতালীয়ভাবে এই ছুটির দিনটিকে কাজে লাগাতে চেষ্টা করে। সাধারণত জাতীয় দিবসগুলো প্রবাসে পরবর্তী রোববার আয়োজন করা হয়ে থাকে। কিন্তু জাপানে সরকারি ছুটির দিন হওয়ায় ৩ নবেম্বর বুধবার টোকিওর হিগাশিতাবাতাচিইকি শিনকোউ শিৎসুতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জাপান শাখা এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। আলোচনা সভায় স্বাগত ও শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ছালেহ্ মোঃ আরিফ। সাংগঠনিক সম্পাদক খন্দকার আসলাম হীরার পরিচালনায় আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ জাপান শাখার সভাপতি কাজী মাহ্ফুজুল হক লাল। সহযোগিতায় যুবলীগ, ছাত্রলীগ এবং বঙ্গবন্ধু স্মৃতিসংঘ। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন প্রবীর বিকাশ সরকার, পিআর প্লাসিড, রাহমান মনি, রফিক উদ্দিন ফরাজি, মানিক চৌধুরী, হানিফ, নুরুল আমিন, টিএম নাহিদ, মোল্লা মোঃ অহিদুল ইসলাম, মাজহারুল ইসলাম, তাজউদ্দিন রবি, মোতাহার হোসেন, এসকে রকি, বাবু সনথ বড়–য়া, ছালেহ্ মোঃ আরিফ এবং কাজী মাহ্ফুজুল হক লাল প্রমুখ।

rahmanmoni@gmail.com

[ad#bottom]

Leave a Reply