মুন্সিগঞ্জে পদ্মা সেতু নির্মাণে মাটি ভরাট শুরু

বহুল প্রত্যাশিত পদ্মা সেতু নির্মাণে মুন্সীগঞ্জে মঙ্গলবার সকালে মাটি ভরাটের কাজ শুরু হয়েছে। পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের এরিয়া-১ অঞ্চলের মাটি ভরাটের কাজ মঙ্গলবার সকালে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে শুরু হয়। ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে জেলার শ্রীনগর উপজেলার দোগাছি এলাকা থেকে ওই মাটি ভরাট কাজ শুরু করা হয়েছে।

আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে মাটি ভরাট কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। পদ্মা সেতু নির্মাণের অংশ হিসেবে এই প্রথম সেতুটির কোন কাজের আনুষ্ঠানিকতা করা হয়েছে মঙ্গলবারই। মাটি ভরাট কাজের মধ্য দিয়ে একধাপ এগিয়ে গেলো দেশের দক্ষিন-পশ্চিম বঙ্গের সঙ্গে রাজধানী ঢাকার সরাসারি সড়ক যোগাযোগের মাধ্যম পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ। দক্ষিন-পশ্চিম বঙ্গের ২৩ জেলার সড়ক যোগাযোগের এক নতুনদ্বারের উম্মোচনের হাতছানি দেখা দিয়েছে শ্রীনগরে পদ্মা সেতুর মাটি ভরাটের কাজ শুরুর মধ্য দিয়ে। মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার দোগাছি বাজার মাঠে মঙ্গলবার সকালে পদ্মা সেতুর মাটি ভরাট কাজ উপলক্ষ্যে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মুন্সীগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য সুকুমার রঞ্জন ঘোষ মাটি ভরাট কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের পর পরই মাটি ভরাট কাজে শ্রমিকরা ব্যস্থ হয়ে উঠেন। এতে বহুল প্রত্যাশিত পদ্মা সেতু নির্মানের স্বপ্নীল যাত্রা শুরু হওয়ায় জেলার শ্রীনগরবাসীর মধ্যে আনন্দের বন্যা বয়ে যায়। এ সময় আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। শ্রীনগর উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানিয়েছে, পদ্মা সেতু নির্মানে মাটি ভরাট কাজে ২৮ কোটি টাকার প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে। এদিকে মাটি ভরাট কাজের ভিত্তি প্রস্তর শেষে পদ্মা সেতু নির্মানে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে ক্ষতিপূরনের চেক বিতরন করা হয়েছে। এ সময় ১২ টি পরিবারের মাঝে মাটি ভরাটের ক্ষতিপূরনের ৩২ লক্ষাধিক টাকার চেক বিতরন করা হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন, মুন্সীগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য সুকুমার রঞ্জন ঘোষ। শ্রীনগর উপজেলার দোগাছি এলাকার ১’শ ৭০ টি পরিবারের মাঝে ওই ক্ষতি পূরনের চেক বিতরন করা হবে।

দিনের শেষে

[ad#bottom]

Leave a Reply