প্রথমবারের মতো কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিবেন মুন্সীগঞ্জবাসী

ভাষা আন্দোলনের ৫৯ বছর পর ২১ ফেব্রুয়ারি রাত ১২টা ১ মিনিটে ভাষা শহীদদের সম্মানে প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিবেন মুন্সীগঞ্জবাসী। এরপরই নব-নির্মিত এ শহীদ মিনারটি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে।

ভাষা আন্দোলনের ৫৯ বছর পর জেলা পরিষদের অর্থায়নে মুন্সীগঞ্জ শহরস্থ জেলা শিল্পকলা একাডেমি সংলগ্ন স্থানে ৬ লাখ টাকা ব্যয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারটি নির্মাণ করা হয়। অন্যদিকে ৫৯ বছর পর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার নির্মাণ ও ভাষা শহীদদের সন্মানে এতে প্রথমবারের মতো ফুল দেয়ার লক্ষ্যে আজ রোববার সকাল থেকে সাজ সজ্জার কাজে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন জেলা প্রশাসন, জেলা পরিষদ, পৌরসভা ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

জানা যায়, ৫২’র ভাষা আন্দোলনের পর থেকে মুন্সীগঞ্জবাসী সরকারি হরগঙ্গা কলেজের শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন করে আসছিল। মুন্সীগঞ্জবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি পূরণের লক্ষ্যে ২০১০ সালের ১১ডিসেম্বর মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন (অব.) এবি তাজুল ইসলাম আনুষ্ঠানিকভাবে এ জেলায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। অন্যদিকে বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন আজ শহীদ মিনারটি উদ্বোধন করবেন বলে জেলা পরিষদের নির্বাহি কর্মকর্তা মো. মোফাজ্জল হোসেন নিশ্চিত করেন।

[ad#bottom]

Leave a Reply