দিনমান তাহসান

ব্যস্ত গায়ক,
জনপ্রিয় শিক্ষক তাহসান। দিনরাত ব্যস্ত থাকার পরও কী করে সব কিছু সামলে ফিট থাকছেন, জানালেন নিজেই

ঘুম ঘুম সকালবেলা
ঘুমকাতুরে আমি। ভোরবেলা ঘুম পায়। সবার ডাকাডাকিতে ঘুম ভাঙে। উঠেই দেখি ক্লাসের বেশি বাকি নেই। ফ্রেশ হয়ে নাশতার টেবিলে বসেই সংবাদপত্রে চোখ বুলিয়ে নিই।

শিক্ষক হিসেবে
শিক্ষকতাকে সব কিছু থেকে আলাদা করে রেখেছি। শিক্ষার্থীদের কাছে আমি শুধুই একজন শিক্ষক। বিশ্ববিদ্যালয়ে মিডিয়া প্রসঙ্গে কোনো কথাই বলি না। ক্লাসের লেকচার শিটগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে গুছিয়ে নিই। অনলাইনে চোখ বুলিয়ে নিজেকে আপডেট রাখি। ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে চমৎকার বন্ধুত্ব আমার। যখন ক্লাস থাকে না, ছেলেমেয়েদের কাউন্সেলিংয়ের জন্য কিছুটা সময় বরাদ্দ রাখি। সাধারণত বিকেল পর্যন্ত ক্লাস থাকে।

ভোজনরসিক
খাবারের কোনো বিধিনিষেধ নেই। নাশতায় রুটি, ডিম ভাজি, টোস্ট খাই। তবে ধরাবাঁধা কিছু নেই। দুপুরটা তো বিশ্ববিদ্যালয়েই কাটে। লাঞ্চ আওয়ারে মিথিলা (স্ত্রী) ও আমি চলে যাই কোনো ফাস্টফুডের দোকানে। পিৎসা আমার খুব পছন্দের আইটেম। এমনিতে তৈলাক্ত খাবার খাই না। কিন্তু মায়ের হাতের ইলিশ মাছ ভুনা হলে কথাই নেই। পাবদা মাছ, আইড় মাছও খুব পছন্দের। আইসক্রিম পছন্দ না করলেও বেড়াতে বেরোলে মিথিলা জোর করেই খাওয়াবে। রাতের মেন্যুতে সবজির একটা আইটেম থাকে। অ্যালার্জির কারণে গরুর মাংস নিষিদ্ধ।

ফিটনেস
আমি মোটেই স্বাস্থ্যসচেতন নই। ঠিক করেছি সামনের মাস থেকেই মর্নিং ওয়াক শুরু করব। মুুটিয়ে যাওয়ার ভয় পাচ্ছি।

ফ্যাশন
ব্র্যান্ড ম্যানেজমেন্ট পড়াই। তাই ব্র্যান্ডের ব্যাপারে যথেষ্ট সচেতন আমি। পণ্যের গুণাগুণ বিচার করে তবেই ব্র্যান্ড নির্বাচন করি। পোশাক হোক কিংবা প্রসাধনী, আগে দেখি পণ্যটার সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারব কি না।

অবসর
ছুটির দিনে দলবল নিয়ে গাজীপুরে বন্ধুর বাংলোবাড়িতে ঢুঁ মারি। মাঝেমধ্যে বিকেলে মিথিলাসহ পরিবারের অন্যদের নিয়ে বেড়াতে বের হই। গানের জন্য আলাদা করে কোনো সময় রাখি না। যখন মন চাইছে, তখনই বসে পড়ছি। অবসরে প্রচুর গান শুনি। নন-ফিকশন টাইপের বই পেলে শেষ না করে ছাড়ি না।

[ad#bottom]

Leave a Reply