সিরাজদিখানে আ’লীগ-বিএনপি সংঘর্ষের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানের জৈনসার ইউনিয়নে সংঘর্ষের ঘটনায় সমঝোতার লক্ষ্যে পুলিশের পদক্ষেপ ব্যর্থ হওয়ার পর শনিবার রাত ও আজ রোববার সকালে থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র ৫৭ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। জানা গেছে, নির্বাচনী প্রচারণাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার রাতে সিরাজদিখানের জৈনসার ইউনিয়নের ভাটিমভোগ, ভবানীপুর পশ্চিমপাড়া এলাকায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী রফিকুল ইসলাম দুদু ও বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী আলমাছ মোল্লার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরদিন শনিবার এএসপি সার্কেল সাইফুল ইসলাম দু’পক্ষকে নিয়ে বৈঠক করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যর্থ হন। এরপরই শনিবার রাতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীর এক সমর্থক বাদী হয়ে বিএনপি’র ২২ নেতাকর্মীর নামে মামলা দায়ের করেন। অপরদিকে আজ রোববার সকালে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীর ভাই আলী আশরাফ মোল্লা বাদী হয়ে আওয়ামী লীগের ৩৫ নেতাকর্মীর নামে মামলা করেন।

উপজেলা বিএনপি সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস ধীরেন জানান, শনিবার রাতে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী থানায় মামলা দায়ের করায় পুলিশের চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে যায়। এ কারণে চেয়ারম্যান প্রার্থী আলমাছ মোল্লাও মামলা করেছেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, উত্তপ্ত পরিস্থিতির জন্য স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরাই দায়ী। তারা এখন পুলিশ দিয়ে বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থীর নির্বাচনী কাজে ব্যাঘাত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। তবে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা বিএনপি’র এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ২ চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে মারামারি ঘটনা হলেও স্থানীয় আওয়ামী লীগ এতে জড়িত নেই।

সিরাজদিখান থানার ওসি মো. মাহাবুবুর রহমান মামলা দায়েরের বিষয়টি স্বীকার করে জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে ঘটনাস্থলে পুলিশ টহল অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Reply