পদ্মা সেতু ॥ আন্দোলনের ঘোষণা প্রত্যাহার

মাইকিং করে ক্ষতিপূরণের টাকা আদায় করতে আন্দোলনের ঘোষণা দিয়ে অবশেষে প্রশাসন ও কর্তৃপক্ষের অনুরোধে বৃহস্পতিবার আলোচনার টেবিলে বসলেন পদ্মা সেতুর ক্ষতিগ্রস্ত ভূমি মালিকগণ। আন্দোলন না করে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিলে মাওয়া পদ্মা সেতু রেস্ট হাউস মিলনায়তনে সেতু কর্তৃপৰের সঙ্গে আলোচনায় বসেন ভূমি মালিকগণ। তবে সেতু কর্তৃপক্ষ আলোচনায় বসলেও স্থানীয় ইউপি নির্বাচনে ব্যস্ত থাকার কারণে জেলা ও স্থানীয় প্রশাসনের কেউ উপস্থিত ছিলেন না। পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজের মালামাল রাখার জন্য সরকার লৌহজংয়ের অনন্তসার, উয়ারী, কুমারভোগ, দক্ষিণ মেদিনী-ল, শিমুলিয়া, ভারতপুর ও রানীগঞ্জসহ ৭ টি মৌজার ১শ’ ৯৬ একর জমি ভূমি অধিগ্রহণ করে। জেলা প্রশাসন হতে ক্ষতিগ্রস্ত ভূমি মালিকদের অধিকাংশ টাকা ইতোমধ্যে পরিশোধ করা হলেও সেতু কর্তৃপক্ষ তাদের অংশের টাকা পরিশোধ না করায় ভূমি মালিকগণ দফায় দফায় কর্তৃপৰের কাছে ধর্ণা দিয়েও কোন কাজ হচ্ছে না। ৰতিপূরণের টাকা পেতে ক্ষতিগ্রস্তরা সরকারের নির্ধারিত এনজিও সিসিডিবির কাছে বার বার যোগাযোগ করেও কোন প্রকার কাজ না হওয়ায় বুধবার বিকেলে মাইকিং করে বৃহস্পতিবার সকালে সিসিডিবি অফিস ঘেরাও করার কর্মসূচি ঘোষণা করা হয় ক্ষতিগ্রস্ত ভূমি মালিকদের পৰ থেকে। এ খবর প্রশাসন ও সেতু কর্তৃপৰের কানে গেলে তারা ৰতিগ্রসত্মদের আন্দোলন ত্যাগ করে আলোচনায় বসার প্রসত্মাব দেয়। পরে ক্ষতিগ্রস্তরা আন্দোলনের পথ পরিহার করে আলোচনার টেবিলে বসেন।

Leave a Reply