শ্রীনগরে আ’লীগ প্রার্থীদের নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে আ’লীগ সমর্থিত প্রার্থীদের নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়া প্রতিপক্ষ প্রার্থীর সমর্থকদের মারধর ও ভোটারদের নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। শ্রীনগর সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল বারেক অভিযোগে জানান, তার প্রতিদ্বন্দ্বী আ’লীগ সমর্থিত প্রার্থী মোখলেছুর রহমান প্রতিদিন নির্বাচনী আচরণবিধি উপক্ষো করে প্রকাশ্যে মিছিল-মিটিং করছেন।

এছাড়া দলীয় প্রভাব খাটিয়ে দয়হাটা, টেক্কা মার্কেট, কানাইনগর, মুন্সীরহাটি ও উপজেলা সদর সংলগ্নসহ প্রায় ৬টি নির্বাচনী ক্যাম্পও চালু রেখেছেন। স্থানীয় প্রশাসন সব দেখেও নিশ্চুপ রয়েছে। মঙ্গলবার রাতে ষোলঘর বাজারে আ’লীগ সমর্থিত প্রার্থী কাজী মাহবুব আলম রুনোর সমর্থকরা স্বতন্ত্র প্রার্থী হাজী আব্দুস সালামের ৪০/৫০ জন কর্মীকে ধাওয়া করলে দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করলেও বর্তমানে এ নিয়ে সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এছাড়া কুকুটিয়া ইউনিয়নে আ’লীগ সমর্থীত প্রার্থী হুমায়ুন কবিরের বিরুদ্ধে বিএনপি সমর্থীত প্রার্থী মোতালেব হাওলাদারের কর্মীদের পুলিশি হয়রানি করানোর অভিযোগ রয়েছে।

অন্যদিকে, গত ১৭ মে উপজেলার ভাগ্যকুল ইউনিয়নের আ’লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী মনির হোসেন মিতুল একই দলের বিদ্রোহী প্রার্থী কাজী ফজলুল হকের সমর্থকদের মারধর করে। এর মধ্যে নানা হুমকি-ধমকি অব্যাহত রেখেছে। এসব কারণে ওই ইউনিয়নের ভোটাররা নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারবে কি না তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী একুল খান।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা ও নির্বাচন সমন্বয়কারী আব্দুল লতিফ মোল্লা বলেন, উপজেলার ১২৬টি কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ। তবে আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Leave a Reply