নারায়ণগঞ্জে ধর্ষণের পর গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা, ধর্ষক গ্রেফতার

রাজধানীর অদূরে নারায়ণগঞ্জের বন্দরে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের পর তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। আহত গৃহবধূর নাম কাজল আকতার লুনা (২০)। তার বাড়ি মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি থানার মান্ডা গ্রামে। গত ৮ জুন ঘটনাটি ঘটলেও গৃহবধূকে গতকাল শনিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় বন্দর থানার পুলিশ অভিযুক্ত এমরানকে গ্রেফতার করেছে।

জানা গেছে, লুনার স্বামী আওলাদ হোসেন মালয়েশিয়া থাকেন। এ সুবাদে এমরান তার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। একপর্যায়ে এমরান গত ৮ জুন রাত ১০টার দিকে লুনাকে তার খালার নারায়ণগঞ্জ বন্দরের বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে এমরান ও তার বন্ধু বশির লুনাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ সময় এমরানকে লুনা বিয়ের কথা বললে এমরান বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়। এ নিয়ে দু’জনের মধ্যে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে এমরান ও তার বন্ধু বশির লুনার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

মারাত্মক আহতাবস্থায় লুনাকে প্রথমে মুন্সীগঞ্জ সদর হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন বন্দর থানার সাব ইন্সপেক্টর লাল মোহাম্মদ। এ ব্যাপারে বন্দর থানায় মামলা হয়েছে।

Leave a Reply