মুন্সীগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু

মুন্সীগঞ্জ শহরের কাছে একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় পপি আক্তার নামে প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। শহরের কাছে জিয়সতলা গ্রামে এআর ক্লিনিকে বৃহস্পতিবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের বাড়ি টঙ্গীবাড়ি বাজার এলাকায়। তার স্বামী আলী আকবর দিন মজুর। স্বামী আলী আকবর বাংলানিউজকে জানান, বুধবার মধ্যরাত ১২টার দিকে প্রসব বেদনা দেখা দিলে তার স্ত্রী পপিকে শহরের কাছে এআর ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়।

রাত সাড়ে ১২ টায় এআর ক্লিনিকের ডাক্তার মঞ্জুরুল আলম পপির সিজার করেন।এ সময় একটি পুত্র সন্তান প্রসব হলেও রোগীর রক্তক্ষরণ শুরু হয়। এতে তার শারিরিক অবস্থা ক্রমেই অবনতি হতে থাকে।

আশংকাজনক অবস্থায় প্রসূতিকে ওই ক্লিনিকে ভর্তি রেখে ডাক্তার বলেন, ‘ভয়ের কিছু নেই। ভালো হয়ে উঠবে।’

রাত বাড়তে থাকলে তার শারিরিক অবস্থা আরও খারাপ হয়। এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার ভোর ৪টার দিকে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন প্রসূতি পপি।

এ ব্যাপারে ক্লিনিক মালিক সুমন মিয়া বাংলানিউজকে বলেন, ‘ রোগীকে যথাযথ চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তবে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে। এতে ডাক্তারের কিছুই করার ছিল না।’

এদিকে, বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত নিহতের লাশ ক্লিনিকেই ছিলো।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
—————————————-

মুন্সীগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ

মুন্সীগঞ্জের একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় পপি আক্তার নামের এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ বৃহস্পতিবার ভোরে শহরের জিয়সতলাস্থ এআর ক্লিনিকে এ মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

পপি আক্তারের বাড়ি টঙ্গীবাড়ি বাজার এলাকায়। তার স্বামী দিন মজুর আলী আকবর জানান, বুধবার মধ্য রাত ১২টায় প্রসব বেদনা দেখা দিলে পপিকে শহরের এআর ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। ভর্তির আধঘণ্টার মধ্যেই ক্লিনিকের ডাক্তার মঞ্জুরুল আলম পপির সিজার করেন। এ সময় পুত্র সন্তান প্রসব হয়। কিন্তু সিজারের পর থেকে রোগীর রক্তক্ষরণ শুরু হয়। তার শারীরিক অবস্থার ক্রমাবনতি হতে থাকলেও প্রসূতিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি রেখে ডাক্তার বলেন, ভয়ের কিছু নেই। তিনি আরো জানান, রাত বাড়তে থাকলে প্রসূতির শারীরিক অবস্থা আরো খারাপ হতে থাকে। একপর্যায়ে বৃহস্পতিবার ভোর ৪টার দিকে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন পপি।

এ ব্যাপারে ক্লিনিক মালিক সুমন মিয়া বলেন, চিকিৎসা যথাযথ দেয়া হয়েছে। তবে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে। এতে ডাক্তারের কিছুই করার ছিল না। এদিকে আজ বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত নিহতের লাশ ক্লিনিকেই পড়ে রয়েছে। নবজাতক সুস্থ রয়েছে বলে ক্লিনিক মালিক জানিয়েছেন।

শীর্ষ নিউজ
——————————————–

Leave a Reply