প্রকাশিত সংবাদের ব্যাখ্যা

গত ২৭শে জুলাই দৈনিক মানবজমিন পত্রিকায় ‘শ্রীনগরে ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় উত্তেজনা’ শীর্ষক সংবাদের ব্যাখ্যা পাঠিয়েছেন মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার হাঁসাড়া গ্রামের আলহাজ বাবুল আক্তার মন্টু। তিনি বলেছেন, প্রকাশিত সংবাদটি সত্য নয়। মেয়ের পিতা সালিশ চায়নি। ঘরোয়া সালিশের মাধ্যমে বিষয়টি মীমাংসা হয়েছে। মেয়ের খোয়া যাওয়া মালামাল সালিশের মাধ্যমে ফেরত পেয়েছে। আমি মেয়ের শাস্তির লক্ষ্যে সালিশি বৈঠকে উপস্থিত ছিলাম। প্রকাশিত সংবাদে আমাদের মান-সম্মান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

প্রতিবেদকের বক্তব্য: এলাকার বাসিন্দাদের গণস্বাক্ষর সংবলিত অভিযোগপত্রে উল্লিখিত বিষয়সমূহ দিয়েই সংবাদটি পরিবেশন করা হয়েছে। ওই অভিযোগপত্রটি এএসপি (সার্কেল) শ্রীনগর অফিসে জমা আছে। ইতিমধ্যে এসপি (সার্কেল) বিষয়টি তদন্তের জন্য অভিযুক্তদের তার অফিসে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

মানবজমিন

Leave a Reply