সিরাজদিখান দুর্ঘটনায় বৃদ্ধার মৃত্যু, বাসে আগুন

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার নীমতলা এলাকায় রোববার যাত্রীবাহী বাসের চাপায় মুহিতুন্নেসা নামে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা সহাসড়ক অবরোধ করে বাসে অগ্নিসংযোগ ও ভাংচুর করে।

নিহত বৃদ্ধা মুহিতুন্নেসা সিরাজদিখান উপজেলার চালতিপাড়া এলাকার মৃত সোহরাব ঢালীর স্ত্রী।

সিরাজদিখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, সকাল ১০টার দিকে মাওয়াগামী ইলিশ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে পথচারী বৃদ্ধা মুহিতুন্নেসা ঘটনাস্থলেই মারা যান।

এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা ইলিশ পরিবহনের একটি যাত্রীবোঝাই বাসে অগ্নিসংযোগ করে ও একই পরিবহনের আরও দু’টি বাস ভাংচুর করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
————

সিরাজদিখানে সড়ক দুর্ঘটনায় হত ১, বাসে আগুন

ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক এক ঘন্টা পর সচল
মোহাম্মদ সেলিম, মুন্সীগঞ্জ থেকে : ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে সিরাজদিখান উপজেলার চালতিপাড়া নামক স্থানে বাস চাপায় পথচারী এক বৃদ্ধা ঘটনাস্থলেই মারা যায়। ইলিশ পরিবহনের ঢাকাগামী বাসটিতে জ্বালিয়ে দিয়েছে জনতা। এই ঘটনা বিক্ষুব্ধ জনতা রবিবার সকাল সোয়া ১০টা থেকে সোয়া ১১ টা পর্যন্ত এক ঘন্টা এই মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ করে রাখে। পুলিশের হস্তক্ষেপে বেলা ১১ টা ২০ মিনিট থেকে যান চলাচল শুরু হয়। এতে ব্যস্ততম মহাসড়কের উভয় পাশে সৃষ্টি হওয়া যানজট কমতে শুরু করেছে। সহাকারী পুলিশ সুপার মো. সাইফুল ইসলাম জানিয়েছেন, সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাসে পুলিশ বিক্ষুব্ধ জনতাকে শান্ত করার পর যান চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

নিহত মহিতুন নেছা(৭০) কেয়াইনের কাজীশাল গ্রামের শিতল চকিদারের স্ত্রী। সে বয়স্ক ভাতা আনতে স্থানীয় ইউপি কার্যালয়ে যাচ্ছিলেন। ঘাতক বাসটির চালক পালিয়ে গেছে।

মুন্সিগঞ্জ নিউজ
————

পথচারীর মৃত্যু, ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক অবরোধ

বাস চাপায় পথচারীর মৃত্যুর জের ধরে মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার নিমতলী এলাকায় ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক আজ রোববার এক ঘণ্টা অবরোধ করে রাখা হয়। এ সময় উত্তেজিত এলাকাবাসী একটি বাস ভাঙচুর ও তাতে আগুন ধরিয়ে দেয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের সিরাজদিখানের নিমতলী এলাকায় ঢাকাগামী ইলিশ পরিবহনের একটি বাস আজ বেলা পৌনে ১১টার দিকে এক নারী পথচারীকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই ওই নারীর মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনার পর বাসটি দ্রুত পালিয়ে যায়। এর কিছুক্ষণ পর ইলিশ পরিবহনের আরেকটি বাস ঘটনাস্থলে পৌঁছালে স্থানীয় জনতা বাসটি ভাঙচুর এবং তাতে আগুন ধরিয়ে দেয়। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ কারণে বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মহাসড়কের নিমতলী এলাকা অবরোধ করে যান চলাচল বন্ধ রাখে স্থানীয় জনতা।

সহকারী পুলিশ সুপার (লৌহজং সার্কেল) মোহাম্মদ সাইফুর ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দুপুর ১২টার দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

বিডি রিপোর্ট 24

————

বাস চাঁপায় বৃদ্ধা মহিলা নিহত

ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক ২ ঘন্টা অবরোধ অগ্নিসংযোগ ও ভাংচুর

কাজী দীপু মুন্সীগঞ্জ থেকে : ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানের নিমতলা এলাকায় গতকাল রোববার বাস চাপায় মহিলা নিহতের জের ধরে ক্ষুব্ধ জনতা ঘাতক বাসটিকে আটক করে অগ্নিসংযোগসহ ৪টি বাস ভাংচুর করেছে। এ সময় তারা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখায় ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে দুই ঘন্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। এ সময় মহাসড়কের উভয় পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে র‌্যাব ও পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করলে যানবাহন চলাচল শুরু হয়।
অগ্নিসংযোগ করা ঘাতক বাস

সিরাজদিখান উপজেলার কাজিরসার গ্রামের স্ত্রী মহিতুননেছা বেগম বয়স্ক ভাতা নেয়ার জন্য কেয়াইন ইউনিয়ন পরিষদে যাওয়ার জন্য রাস্তা পার হচ্ছিল। এ সময় ইলিশ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহি বাস তাকে চাপা দিলে সে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। এ সময় স্থানীয় জনতা ঘাতক বাসটিকে আটক করে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় এবং মহাসড়ক অবরোধ করে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়। সিরাজিদখান থানা পুলিশ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক।

Leave a Reply