পদ্মা সেতুর অধিগ্রহনকৃত জায়গা হতে স্থানান্তরিত

মাওয়া লঞ্চ ঘাট সরিয়ে নিতে বিআইডব্লিউটিএ-কে চিঠি দিয়েছে পদ্মা বহুমুখী সেতু কতৃপক্ষ
মোহাম্মদ সেলিম, মুন্সীগঞ্জ থেকে : মাওয়ায় পদ্মা সেতুর অধিগ্রহনকৃত এলাকায় লঞ্চ ঘাট স্থানান্তর করা প্রতিবাদ জানিয়ে আনুষ্ঠানিক চিঠি দিয়ে এ লঞ্চ ঘাট সরিয়ে নিতে বলেছে পদ্মা বহুমুখী সেতু কতৃপক্ষ। পদ্মা বহুমুখী সেতু বিভাগের তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (পূর্ণবাসন) মোঃ মঞ্জুরুল ইসলাম স্বাক্ষতির বিআইডব্লইটিএর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলীকে লেখা পত্রে বলা হয়েছে ,পদ্মা সেতুর অধিগ্রহনকৃত মাওয়া পদ্মা পাড়ের ওই জায়গা হতে লঞ্চ ঘাট ও ঘাটের জন্য তৈরী করা ইটের রাস্তা সরিয়ে নিতে হবে। আগামী বছর জানুয়ারী মাসে পদ্মা সেতুর মূল কাজ শুরু হবে। তাই এখানে কোন স্থায়ী লঞ্চ ঘাট নির্মান করা যাবে না। এখানে লঞ্চ ঘাট নির্মিত হলে এটি পদ্মা সেতুর এলাইমেন্টের জন্য হবে হুমকি স্বরূপ। তাছাড়া বিদেশীরাও পদ্মা সেতুতে আর্থায়ন করতে উৎসাহ হারিয়ে ফেলবেন। ২৪ অক্টোবর লেখা এ চিঠির অনুলিপি মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসকের হাতে এসে পৌচেছে বলে জেলা প্রশাসকের অফিস নিশ্চিত করেছে। ঘাটটি স্থায়ী ভিত্তিতে থাকছে কি-না তা জানা না গেলেও ঈদে নতুন এ লঞ্চ ঘাট থেকে কাটা সার্ভিস পরিবহনের লঞ্চ গুলো চলাচলের এক সিদ্ধান্ত রোবাবার জেলা প্রশাসনের বিশেষ সভায় নেয়া হয়েছে। তবে পাশাপাশি পূর্বের লঞ্চ ঘাটটিও চালু থকবে। জেলা প্রশাসক আজিজুল আলম, পুলিশ সুপার শফিকুল ইসলাম, লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম রোবাবর এ লঞ্চ ঘাট পরিদর্শন শেষে ঘাটের পল্টুনটি পরিবর্তনের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তপক্ষকে অনুরোধ করেন।

মুন্সিগঞ্জ নিউজ

Leave a Reply