ক্রেতা-বিক্রেতায় সরব সিরাজদিখানের পশুর হাটগুলো

উপজেলার বিভিন্ন হাটে এখন চলছে গরু-ছাগল বেচাকেনার ধুম। উপজেলায় ছোট বড় ১৫টি কুরবানির পশুরহাট জমে উঠেছে। শেষ মুহূর্তে বাড়ছে ক্রেতাদের ভিড়। বিক্রেতারা গরুর দাম হাঁকালেও ক্রেতারা বেশ দামদর করেই গরু-ছাগল কিনছেন।

হাটে এবার পশুর আমদানি বেশি হলেও গরুর চেয়ে ছাগলের দাম অনেক বেশি। ছোট সাইজের একটি ছাগল বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার ৮০০ থেকে ৩ হাজার ৫০০ টাকায়। সে তুলনায় গরুর দাম অনেক কম। গতবার যে গরু বিক্রি হয়েছে ৩০ হাজার টাকায়, সেই গরু এবার বিক্রি হচ্ছে ২৫ হাজার টাকার মধ্যে। ভারত থেকে এবার আগেভাগে অনেক গরু এনে আমদানি কারা হলেও বিক্রি তেমন নেই বলে বিক্রেতারা জানান।

উপজেলার সবচেয়ে বড় পশুরহাট হলো বালুরচর বাজার। এখানে গত শনিবার থেকে টানা ঈদের আগের দিন পর্যন্ত গরু-ছাগল বিক্রি হবে। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এসে ব্যবসায়ীরা এখানে তাদের কুরবানির পশু বিক্রি করছেন। উপজেলার অন্য হাটের মধ্যে ইছাপুুরা, কুচিয়ামোড়া, ঈমামগঞ্জ, মালখানগড়, কুসুমপুর বাজার, শেখরনগড় বাজার মালখানগরে বেসরকারিভাবে কুরবানির পশুরহাট জমে উঠেছে।

ভোরের কাগজ

Leave a Reply