গজারিয়ায় আওয়ামী লীগের পাল্টাপাল্টি সভা!

পুলিশের নিরাপত্তা বেষ্টনীতে সভাস্থলে আসেন দুই এমপি
সেতু ইসলাম, মুন্সীগঞ্জ: মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলা পরিষদ এলাকায় পুলিশি প্রহরায় গতকাল শনিবার ৫০ গজের মধ্যে একই সময়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও স্থানীয় দুই এমপির পাল্টাপাল্টি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় পাল্টাপাল্টি দুই সভাস্থলে দেড় শতাধিক পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়। এদিকে মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের এমপিসহ অন্য দুই এমপি সভাস্থলে যোগ দিয়েছেন বিপুল সংখ্যক পুলিশি নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে। গতকাল শনিবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য এম ইদ্রিস আলী ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য মমতাজ বেগম পুলিশের নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানস্থলে আসেন। গতকাল শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জেলার গজারিয়া উপজেলা পরিষদের অডিটোরিয়ামে জেলা পরিষদ আয়োজিত অসহায় পরিবারের মাঝে সেলাই মেশিন, কম্পিউটার, রিকশা ও ভ্যান গাড়ি বিতরণের পূর্বনির্ধারিত সভা শুরু হয়। একই সময়ে উপজেলা পরিষদসংলগ্ন সাব-রেজিস্ট্রার অফিস প্রাঙ্গণে আওয়ামী লীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষে দুই আওয়ামী লীগ নেতা গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় এক প্রতিবাদ সভা শুরু করা হয়। গজারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ ওই প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে। গজারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ শীর্ষস্থানীয় নেতারা এই প্রতিবাদ সভায় যোগদান করেন। পক্ষান্তরে দুই এমপির যোগদান করা জেলা পরিষদ আয়োজিত অনুষ্ঠানে স্থানীয় আওয়ামী লীগের তেমন কোনো নেতাকে দেখা যায়নি। গজারিয়া উপজেলা পরিষদের অডিটোরিয়ামে জেলা পরিষদ আয়োজিত অনুষ্ঠানটি পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি ছিল বলে উপজেলার ইউএনও মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান দাবি করেছেন। তিনি জানান, গজারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষনেতাদের আগেই বলা হয়েছিল অনুষ্ঠানের কথা। তাদের কাছে আওয়ামী লীগের প্রতিবাদ সভাটি পিছিয়ে নেওয়ার অনুরোধ করা হয়েছিল; কিন্তু আওয়ামী লীগ নেতারা প্রশাসনের অনুরোধ উপেক্ষা করে প্রতিবাদ সভা করেছেন।

এদিকে গতকাল বেলা ১১টার দিকে আওয়ামী লীগ নেতা, ঈমামপুর ইউপির সদস্য সরল খান ও অপর আওয়ামী লীগ নেতা নাসির মিয়াজী গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের দাবিতে গজারিয়া উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণের সামনে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি উপজেলা প্রাঙ্গণের সামনের সড়ক প্রদক্ষিণ করে সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে এসে শেষ হয়। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সেখানে এক প্রতিবাদ সভায় মিলিত হন আওয়ামী লীগ নেতারা। গজারিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি কামরুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন_ সাধারণ সম্পাদক সোলায়মান দেওয়ান, কেন্দ্রীয় যুবলীগের নেতা হাফিজুর রহমান খান, বালুয়াকান্দি ইউপির আওয়ামী লীগদলীয় চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন মিয়া প্রমুখ।

অন্যদিকে একই সময়ে উপজেলা পরিষদে সংসদ সদস্য এম ইদ্রিস আলী ও মহিলা সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম অপর এক অনুষ্ঠানে ১৫ জনের মধ্যে কম্পিউটার, ১৩ জনকে রিকশা, ২০ জনকে সেলাই মেশিন ও ১২ জনের মধ্যে ভ্যানগাড়ি বিতরণ করেন। এই অনুষ্ঠানটি গজারিয়া উপজেলার ইউএনও মোহাম্মদ আসাদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এ প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা হাফিজুর রহমান খান বলেন, আমরা আমাদের অনুষ্ঠান করেছি। প্রশাসন করেছে তাদের অনুষ্ঠান। তাছাড়া দুই এমপির অনুষ্ঠানে কোনো আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী যোগ দেননি।

ডেসটিনি

Leave a Reply