গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, থানা ঘেরাও

মুন্সীগঞ্জে গৃহবধূর মৃত্যুর ঘটনায় ঘাতক স্বামীর বিরুদ্ধে হত্যা মামলা নেয়ার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে সদর থানা ঘেরাও করেছে অর্ধশতাধিক গ্রামবাসী। শুক্রবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় তারা অবিলম্বে ঘাতক স্বামীকে গ্রেফতার ও হত্যা মামলা রুজু করার দাবি জানান।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মুন্সীগঞ্জ সদরের বনিক্যপাড়া এলাকায় বুধবার রাতে সালমা বেগম (১৮) নামের এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। পরে ময়না তদন্ত শেষে বৃহস্পতিবার লাশটি দাফন সম্পন্ন হয়।

এ ঘটনায় আত্মহত্যা করেছে এই মর্মে অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়। এতে গ্রামবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। এর জের ধরে শুক্রবার সন্ধ্যায় তারা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে সদর থানা ঘেরাও করে ঘাতক স্বামী দেলোয়ারকে গ্রেফতার ও হত্যা মামলা রুজু করার দাবি জানান।

এ সময় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহীদুল ইসলাম ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর হত্যায় প্ররোচনা বা হত্যা মামলা রুজু করার আশ্বাস দেন। পরে গ্রামবাসী বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে প্রেস ক্লাবে এসে এ ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে সাংবাদিকদের সহযোগিতা চান।

গৃহবধূর পিতা আলী হোসেন জানান, তার মেয়েকে হত্যার পর স্বামীর বাড়ির লোকজন আত্মহত্যা বলে ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। পুলিশের কোনো প্রকার সাহায্য করছে না।

এ কথায় অর্ধশতাধিক নারী-পুরুষ সায় দেন।

সদর থানার ওসি মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, “ময়না তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”

সদররের রামগোপালপুর গ্রামের আলী হোসেনের মেয়ে সালমা বেগমের সঙ্গে বনিক্যপাড়া গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের সঙ্গে দুই মাস আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না। এ নিয়ে প্রায়ই দেলোয়ার স্ত্রী সালমাকে মারধর করতো। বুধবার সন্ধ্যায় সালমার রহস্যজনক মৃত্যু হয়।

বার্তা২৪

Leave a Reply