মাওয়ার পদ্মার চরে আধুনিক পর্যটন কেন্দ্র হচ্ছে

মাওয়ায় পদ্মার চরে সরকারীভাবে আধুনিক পর্যটন কেন্দ্র হচ্ছে। দশ মন্ত্রণালয়ের সমন্বয়ে এ পর্যটন কেন্দ্র বাস্তবায়নে প্রাথমিক কাজ শুরু হয়েছে। উচ্চ পর্যায়ের একটি কমিটি পর্যটন কেন্দ্রটির প্রাক- সম্ভাব্যতা যাচাই নিয়ে আজ মঙ্গলবার কমিটির বৈঠক করবে। এই বৈঠকে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত বেরিয়ে আসতে পারে। ঢাকা থেকে মাত্র ৩৮ কিলোমিটার দূরত্বে লৌহজং উপজেলার মাওয়া ও শিবচর উপজেলার কাওড়াকান্দি ঘাটের মাঝামাঝি পদ্মার চরকে বেছে নেয়া হয়েছে। নৌ মন্ত্রণালয়, ভূমি মন্ত্রণালয়, এলজিইডি, স্বরাষ্ট্র, বন ও পরিবেশ এবং বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা মুন্সীগঞ্জ ও মাদারীপুরের প্রশাসনকে নিয়ে সরেজমিনে চরগুলো পরিদর্শন করেছেন। মাওয়া থেকে ৫ কিলোমিটার দূরে পদ্মা নদীর কাউলিয়ার চর এবং হাজরা টানিংয়ের পশ্চিমের চরটি প্রাথমিকভাবে নির্বাচন করা হয়েছে বলে সূত্র জানায়। পর্যটন কেন্দ্রটির প্রাক- সম্ভাবতা যাচাইয়ে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (প্রশাসন) মোঃ আলাউদ্দিনকে আহ্বায়ক করে ১০ সদস্যের একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে। প্রাক-সম্ভাব্যতা যাচাই করে কমিটির কাছে পদ্মার চরের ওই স্থানটিই গুরম্নত্ব পেয়েছে বলে একটি সূত্র থেকে জানা গেছে। হাইড্রোলজিক্যাল জরিপ ও সয়েল টেস্টের পরই এ ব্যাপারে চূড়ানত্ম সিদ্ধানত্ম নেয়া হবে। এই পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলা হলে এখানে হোটেল, মোটেল, ঝুলনত্ম সেতুসহ থাকবে আধুনিক সব সুযোগ সুবিধা। কমিটির আহ্বায়ক মোঃ আলাউদ্দিন জানান, বৈঠকে সিদ্ধানত্ম নিয়ে সরকারের কাছে প্রসত্মাবটি পাঠানো হবে। মুন্সীগঞ্জের ডিসি মোঃ আজিজুল আলম জানিয়েছেন, মন্ত্রণালয়ের আগ্রহে পদ্মার চরে একটি পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলার প্রাক-সম্ভাবতা যাচাই করা হচ্ছে।

জনকন্ঠ

Leave a Reply