টঙ্গীবাড়ীতে সরকারি খাল দখল : নৌ চলাচল বন্ধ

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী উপজেলার তালতলা থেকে শুরু করে বালিগাঁও পর্যন্ত সরকারি খাল প্রতিনিয়ত দখল করে নিচ্ছে ভূমিদস্যুরা। ভরাট করে খালের ওপর গড়ে তুলছে অবৈধ স্থাপনাগার। ভূমি কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগসাজশ করে এলাকার চিহ্নিত ভূমি দস্যুরা খাল ভরাট করে দোকানপাট, করাতকল ও বহুতল ভবন নির্মাণ করে যাচ্ছে অবাধে। ফলে খাল সংকুচিত হয়ে নৌযান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। মূলত এটা বুড়িগঙ্গা ও ধলেশ্বরী নদীর সংযোগ খাল। এখন আর আগের মতো ঢাকা থেকে তালতলা, বালিগাঁও, ডহরি, কলাকুপা বান্দুরা লঞ্চ চলাচল করে না। আগে প্রতিদিন এই জল পথ দিয়ে বিভিন্ন জেলা থেকে মাল ও যাত্রীবাহী শতাধিক ট্রলার, লঞ্চ, কার্গো যাতায়াত করতো। খাল দখল করে ভরাটের কারণে এখন এই রুট বন্ধ হয়ে গেছে।

নৌ-পথের যাত্রীদের দুর্ভোগ বর্ণনা করে বালিগাঁও এলাকাবাসী জানিয়েছে এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তিরা স্থানীয় প্রশাসনকে ঘুষ দিয়ে সরকারি খাল ভরাট করেই চলেছে। বরিশাল থেকে শতাধিক কাঠ ব্যবসায়ী দখলদারদের কাছ থেকে ভরাটকৃত জায়গা ভাড়া নিয়ে ওই স্থানে দোকানঘর নির্মাণ করে কাঠের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে টঙ্গীবাড়ী উপজেলা ভূমি অফিসের কানুনগো চ-িপদ বাড়ৈ এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, রাজনৈতিক ব্যক্তিদের চাপে অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া যাচ্ছে না। ইচ্ছা করলে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয় ও পানি উন্নয়ন বোর্ড অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারে। অপরদিকে বালিগাঁও বাজারের খালের পার দখল করে দোতলা তিনতলা বিল্ডিং তৈরি হচ্ছে। স্থানীয় দখলদার অলিমদ্দি মেম্বারের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন প্রশাসনকে মাসোয়ারা দিয়েই খাল ভরাট করে স্থাপনাগার তৈরি করা হচ্ছে। তালতলা ও বালিগাঁও বাজারের দোকানদারা জানিয়েছেন স্থানীয় প্রভাবশালী মহলের পেশা খাল ভরাট করে জায়গা বিক্রি করা। এ ব্যাপারে প্রসাশনের কাছ থেকে কোনো প্রতিকার পাওয়া যায় না।

ডেসটিনি

Leave a Reply