প্রবাসী ওয়ালিদ গুপ্ত হত্যার নেপথ্যে সাবেক এক ইউপি চেয়ারম্যান: কিলিং মিশনে অংশ নেয় ৮ জন

১ মাস ১৪ দিন পর আজ শুক্রবার মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার চরাঞ্চল শিলই ইউনিয়নের আকালমেঘ গ্রামের ইউপি সদস্যের ছেলে প্রবাসী ওয়ালিদ বেপারী গুপ্ত খুনের ঘটনার ক্লু-উদ্ধার হয়েছে। কিলিং মিশনে জড়িত এক ঘাতককে গ্রেফতার করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জেলার টঙ্গীবাড়ি উপজেলার পুরা বাজার থেকে পুলিশ ঘাতক মোহাম্মদ হোসেনকে গ্রেফতার করে। এদিকে, গ্রেফতারকৃতের দেয়া এক জবানবন্দিতে এ হত্যাকান্ডের রহস্য উম্মোচিত হয়েছে। মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় গতকাল শুক্রবার দুপুরে পুলিশের কাছে সে ১৬১ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করে। সদর থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই সুলতান আহমেদ জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকান্ড ঘটে। শিলই ইউপির সদস্য আমজাদ বেপারীর ছেলে প্রবাসী ওয়ালিদ বেপারী খুনের ঘটনায় কিলিং মিশনে অংশ নেয় ৮ জন। এছাড়া এ হত্যার নেপথ্যে রয়েছে শিলই ইউনিয়নের সাবেক এক চেয়ারম্যান। তবে, তদন্তের খাতিরে পুলিশ সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের পরিচয় জানায়নি। অপরদিকে, শুক্রবার বিকেলে গ্রেফতারকৃত মোহাম্মদ হোসেনকে পুলিশ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট সদর আদালতে পাঠিয়েছে। উল্লেখ্য, বিদায়ী বছরের ৬ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সদর উপজেলার চরবেশনাল গ্রামের চকের মধ্যে একটি ডোবা থেকে পুলিশ তার গলিত লাশ উদ্ধার করে। ১ ডিসেম্বর দিবাগত রাত থেকে সে নিখোঁজ ছিল। লাশ উদ্ধারের ঘটনায় ৬ ডিসেম্বর রাতেই নিহতের মা হাফেজা বেগম বাদী সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

Leave a Reply