মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার খাল দখল !

মোজাম্মেল হোসেন সজল মুন্সীগঞ্জ: মুন্সীগঞ্জ শহরের কাছে মুন্সীরহাট বাজার এলাকায় বালু ফেলে খাল ভরাট করে পাশের জমিতে নির্মাণ করা হচ্ছে বহুতল ভবন। মুন্সীরহাট খালের বিপুল এলাকা দখল করে বালু ভরাট বাঁধ তৈরী করা হয়েছে। এতে এ খালের পানির প্রবাহ থমকে গেছৈ।স্বাভাবিক পানি প্রবাহের গতি নেই এখন এ খালে। সেখানে বহুতল ভবন নির্মাণ করছেন মোফাজ্জেল সরদার নামে জমি-বালু ভরাট ব্যবসায়ী। তার বক্তব্য, প্রায় ৬ মাস খালের উপর এ বালুর বাঁধ থাকবে। পরে বালু সরিয়ে খাল ফিরিয়ে দেয়া হবে। মুন্সীগঞ্জ পৌরসভা থেকে অনুমতি নিয়েই খালের উপর বালু ভরাট করা হয়েছে বলে নির্মাণাধীন ভবনের মালিকের দাবি।। ১৫-১৬ দিন আগে ভবন নির্মাণের সামগ্রী, ইট,বালি, সুরকিসহ বিভিন্ন মালামাল আনা-নেয়া ও ভবন নির্মাণের সার্বিক সুবিধার্থে মুন্সীরহাট খালে এ বালুর বাঁধ দেয়া হয়। প্রায় মাইল খানেক দৈর্ঘ্যরে এ খালের মুন্সীরহাটের মুখোতে এ বালুর বাঁধ দেয়ায় পুরো খালের প্রবাহ থমকে গেছে। এদিকে, মুন্সীগঞ্জ পৌরসভা মালামাল আনা-নেওয়া ও সার্বিক সুবিধাভোগের জন্য গেলো বছরের ২২ ডিসেম্বর নির্মিতব্য ভবনের মালিককে খালের উপর বালু ভরাটের লিখিত অনুমতি দেয়া হয়েছে। পৌর মেয়র একে এম ইরাদত মানুর সাক্ষরিত খাল ভরাটের অনুমতি পত্রের সত্যতাও পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে পৌরসভার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও পৌর মেয়র অনুমতি দেয়ার কথা স্বীকার করেছেন। পৌর মেয়র একে এম ইরাদত মানু বাংলা ২৪ বিডি নিউজকে বলছেন- এটা নাগরিক সুবিধার জন্য দেয়া হয়েছে। ৬ মাস লাগবে ভবন নির্মাণ করতে। কাজেই ৬ মাস পর আবার খালের জায়গায় বালুর বাঁধ কেটে নেয়া হবে। খাল- খালের জায়গায় ফিরে আসবে।

বাংলা ২৪ বিডি নিউজ

Leave a Reply