এসএসসির প্রশ্নে এক পৃষ্ঠায় ছাপা পড়েনি!

মোহাম্মদ সেলিম, মুন্সীগঞ্জ থেকে : এসএসসির প্রশ্নের অপর পৃষ্ঠায় ছাপা না থাকায় সাময়িক বিড়ম্বনায় পড়ে ১০ পরীক্ষার্থী। কৃর্তপক্ষের নজরে আনার পর অতিরিক্ত প্রশ্ন থাকায় তা বদল করে দেয় হয়। প্রথম দিনেই বুধবার বাংলা ১ম পত্রের পরীক্ষায় এই ঘটনা ঘটে লৌহজং উপজেলার লৌহজং পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে। কেন্দ্র সচিব আশুতোষ চন্দ্র জানান, কেন্দ্রে এসে প্রশ্ন পত্রের প্যাকেট খুলে শিক্ষর্থীদের মাঝে বিলির পর দেখা যায় কিছু প্রশ্নের এক পিঠে (পৃষ্ঠায়) ছাপা নেই। দুই পৃষ্ঠার এ প্রশ্ন পত্রের ১০টির পেছনের পাতা বা অপর পৃষ্টায় কোন প্রশ্নের ছাপা উঠেনি। তবে এতে পরীক্ষা নিতে কোন প্রকার সমস্যার সৃষ্টি হয়নি। সরবরাহকৃত অতিরিক্ত প্রশ্ন পত্র দিয়ে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা গ্রহন করা হয়। প্রত্যক্ষদর্শী ভিজিলেন্স টিমের সদস্য সাইদুর রহমান এই তথ্যের সত্যতা স্বীকার করেন। এই কেন্দ্রে মোট ৯শ’৭৩ জন শিক্ষার্থীর পরীক্ষায় অংশ গ্রহনে করে। অনুপস্থিত ছিল ৪ জন।

পুরনো পরীক্ষার্থীর বিড়ম্বনা

এদিকে শহরের মুন্সীগঞ্জ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় উপ কেন্দ্রে ভুলবশতঃ পুরনো কয়েক পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা গ্রহন করা হয়েছে নতুন প্রশ্নে। এছাড়া রচনামূলক পরীক্ষা ২ঘন্টা ১০ মিনেটে শেষ হলেও ১০ মিনিট আগে সর্তক ঘন্টা দেয়ার কথা। তা না দিয়ে সরাসরি ১২ টা ১০ মিনিটে ঘন্টা পেটানো হয়। রিভিসন দেওয়ার সুযোগ না পেয়ে পরীক্ষার্থীরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এই উপ-কেন্দ্রে ৪১৭ জন পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করছে। এর মধ্যে পুরনো পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৩৮। উপকেন্দ্রেটির সচিব শহীদ আলম নুর মোহাম্মদ জানান, এতে মেজর কোন সমস্যা হয়নি। বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে। বিদ্যালয় সূত্র জানায়, নৈব্যক্তিক অংশে ২জন পুরনো পরীক্ষার্থী ভুলবশতঃ নতুন প্রশ্নে পরীক্ষা দেয়।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ব্যারিস্টার গোলাম সারোয়ার জানান, মুন্সীগঞ্জ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় উপ-কেন্দ্রে ২/১ জন ছাত্রের সমস্যা হয়েছে। এছাড়া লৌহজংয়ের ঘটনাটি সম্পর্কে তিনি অবগত নন।

Leave a Reply