পুলিশের কাছ থেকে হ্যান্ডকাপসহ গ্রেফতারকৃত আসামী ছিনতাই

মোজাম্মেল হোসেন সজল, মুন্সীগঞ্জ: মুন্সীগঞ্জের চরাঞ্চল মোল্লাকান্দিতে শুক্রবার বিকেলে একদল দুস্কৃতকারী পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে হ্যান্ডকাপসহ ধৃত আসামীকে ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। দুস্কৃতকারীদের হামলায় এসআইসহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য সামান্য আঘাত পান। শুক্রবার বিকেল ৫ টার দিকে জেলা সদরের চরাঞ্চল মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের কংসপুরা গ্রামে ১৫-১৬ জনের একদল লোক হামলা চালায় পুলিশের উপর। এ সময় তারা পুলিশকে মারধর করে একাধিক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী বিপ্লবকে ছিনিয়ে যায় বলে এসআই এমারত হোসেন জানিয়েছেন।

তিনি জানান, একাধিক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী বিপ্লবকে কংসপুরা গ্রামের সদর উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি মোস্তফা মোল্লার বসত ঘর থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে আসামীকে হ্যান্ডকাপ পড়িয়ে পুলিশের ভ্যানে উঠানোর এক পর্যায়ে ওই আ’লীগ নেতার ছেলে আতাহারের নেতৃত্বে দুস্কৃতকারীরা পুলিশের উপর হামলে পড়ে। গ্রেফতারকৃত ওই আসামী মোল্লাকান্দি ইউপির চেয়ারম্যান রিপন পাটোয়ারীর সমর্থক বলে পুলিশ দাবী করেছে।সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো: আবুল বাসার বাংলা ২৪ বিডি নিউজকে জানান, আসামীকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসার পথিমধ্যে দুস্কৃতকারী দল হানা দিয়ে ছিনতাই করে নিয়েছে। তবে, পরবর্তীতে পুলিশ ফের ওই আসামীকে গ্রেফতারে সেখানে চিরুনী অভিযান চালিয়েছে। যে করেই হোক ছিনিয়ে নেয়া আসামীকে ধরা হবেই। আসামী ছিনতাইয়ের ঘটনায় সদর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

বাংলা ২৪ বিডি নিউজ
====================

মুন্সীগঞ্জে পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে হ্যান্ডকাপসহ আসামি ছিনতাই!

পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে মুন্সীগঞ্জে একাধিক মামলার আসামি বিপ্লবকে হ্যান্ডকাপসহ ছিনিয়ে নিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা।

শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে সদরের মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের কংসপুরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় সন্ত্রাসীদের হামলায় উপ-পরিদর্শক (এসআই) এমারত (৩৪) আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, সদর থানার এসআই এমারতের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম মোল্লাকান্দি ইউয়িনয়নের কংসপুরা গ্রামে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোস্তফা মোল্লার বাড়িতে অভিযান চালায়।

এ সময় একাধিক মামলার আসামি বিপ্লবকে গ্রেফতার করে হ্যান্ডকাপ পড়িয়ে থানায় নেয়ার পথে আওয়ামী লীগ নেতার ছেলে আতাহারের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী পুলিশের উপর হামলা চালায়। এস আই এমারতকে মারধর করে হ্যান্ডকাপসহ আসামি বিপ্লবকে তারা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঘটনার সময় পুলিশকে অসহায় মনে হয়েছে। আসামি ছিনিয়ে নেওয়ার সময় সন্ত্রাসীদের কাছে আগ্নেয়াস্ত্রসহ বিভিন্ন ধারালো অস্ত্র ছিল। তারা ইউপি চেয়ারম্যান রিপন পাটোয়ারী গ্রুপের বলে ছাত্রলীগ নেতা পাভেল বাংলানিউজকে জানান।০

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাশার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বাংলানিউজকে জানান, আসামি গ্রেফতার করে নিয়ে আসার পথে ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। তবে হ্যান্ডকাপ নিতে পারেনি বলে দাবি করেন তিনি। তিনি জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুুতি চলছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
=====================

মুন্সীগঞ্জে আসামি ছিনিয়ে নিল আওয়ামী লীগ

মুন্সীগঞ্জের চরাঞ্চলে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে একাধিক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি বিপ্লবকে হ্যান্ডকাপসহ ছিনিয়ে নিয়ে গেছে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা। শুক্রবার বিকেল পাঁচটার দিকে সদরের মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের কংসপুরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ পাঠানো হয়েছে। কংসপুরা ও আশাপাশ গ্রামে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এমারতের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম মোল্লাকান্দি ইউয়িনয়নের কংসপুরা গ্রামে উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি মোস্তাফা মোল্লার বাড়িতে অভিযান চালায়। অভিযানে একাধিক মামলার আসামি বিপ্লবকে গ্রেফতার করে হ্যান্ডকাপ পড়িয়ে থানায় রওয়ানা হয়।

পথে আওয়ামী লীগ নেতার ছেলে আতাহারের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এ সময় এসআই এমারতকে মারধর করে হ্যান্ডকাপসহ আসামি বিপ্লবকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

ছাত্রলীগ নেতা পাভেল জানান, আসামি ছিনিয়ে নেয়ার সময় সন্ত্রাসীদের কাছে আগ্নেয়াস্ত্রসহ বিভিন্ন ধারালো অস্ত্র ছিলো। তারা ইউপি চেয়ারম্যান রিপন পাটোয়ারী গ্রুপের ।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল বাশার জানান, আসামি গ্রেফতার করে নিয়ে আসার পথে বিপ্লবকে জোরপূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। তবে হ্যান্ডকাপ নিতে পারেনি বলে দাবি করেন ওই কর্মকর্তা।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

বার্তা২৪

Leave a Reply