মেঘনা পাড়ে মৃতের স্বজনদের পাশে এলাকাবাসী

লঞ্চ ডুবির ঘটনায় গত দুই দিন মুন্সীগঞ্জের মেঘনা নদীর তীরে লঙ্গরখানায় অবস্থানরত মৃত যাত্রীদের স্বজনদের প্রতি বিভিন্ন ব্যক্তি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। সেই সঙ্গে চরকিশোরগঞ্জ গ্রামবাসীও মৃতের স্বজনদের থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা করে সকলের মন জয় করে নিয়েছে। আপনহারা স্বজনরা যাতে থাকা ও খাওয়ায় কষ্ট না পায় সে লক্ষ্যে দিনরাত মেঘনার পাড়ে অবস্থান নিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন অনেকেই।

ঢাকার মালিবাগ থেকে স্বজনের খোঁজে আসা সৈয়দ শাহিনুজ্জামান বাংলানিউজকে জানান, স্থানীয় চরকিশোরগঞ্জ গ্রামবাসী, গজারিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আহসানউল্লাহসহ বিভিন্ন ব্যক্তিরা থাকা ও খাওয়ার বিষয়ে মৃত যাত্রীদের স্বজনদের সহযোগিতা করছেন।

তিনি আরও জানান, স্থানীয় লোকজন আমাদের দিকে যেভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তা ৭১’র এর মুক্তিযুদ্ধের কথা মনে করিয়ে দিয়েছে।

গজারিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আহসানউল্লাহ বাংলানিউজকে জানান, মানুষ মানুষের জন্য। আর যে কোন দুর্ঘটনায় কষ্টদায়ক। আর লঞ্চ ডুবিতে যেভাবে মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে এবং স্বজনদের আহাজারি দেখে যে কোন মানুষের হৃদয় ছুঁয়ে যায়।

এসকল স্বজনদের থাকা ও খাওয়া যাতে কোন সমস্যা না হয় সে জন্য গত দু’দিন তাদের সহযোগিতায় খাবারের আয়োজন করা হয়েছিল।

এছাড়া কর্তব্যরত প্রশাসনের কর্মকর্তাদের খাবারের আয়োজন করেন সাবেক এই চেয়ারম্যান।

অন্যদিকে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফসারউদ্দিন ভূঁইয়া, ইমামপুর ইউপি চেয়ারম্যান মনসুর আহমেদ জিন্নাহসহ একাধিক ব্যক্তি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Leave a Reply