লঞ্চ ডুবি: টুকরো চিঠি উদ্ধার

মুন্সীগঞ্জের মেঘনা নদীতে উদ্ধার হওয়া লঞ্চের কেবিন থেকে একটা টুকরো চিঠি পাওয়া গেছে। সদর উপজেলার চরমশুর গ্রাম সংলগ্ন মেঘনার পাড়ে ভিড়িয়ে রাখা লঞ্চের কেবিনে থেকে গণমাধ্যম কর্মীরা বৃহস্পতিবার দুপুরে এই টুকরো চিঠিটি উদ্ধার করেন। টুকরো চিঠিতে লেখা রয়েছে- ‘প্রিয় ইশিতা আপু, ভাল আছ নিশ্চয়ই। তুমি তাড়াতাড়ি দেশে (গ্রামের বাড়ি) আস। কয়েকদিন পরই তোমার জন্ম দিন। তবে উপহার দিতে পারবো না। পিঠা খেয়ে যেও। জন্মদিন উপলক্ষে তোমার জন্য ড্রেস কেনা হয়েছে। পছন্দ হবে। গোলাপি কালার।’

টুকরো চিঠিতে আরও উল্লেখ করা আছে- ‘কোরআন শরিফের ১০ পাড়া পড়া হয়েছে। সামনে পরীক্ষা, আমার জন্য দোয়া করো। আশাকরি, ভাল ফলাফল করতে পারবো।’

সাংবাদিকরা জানান, উদ্ধার করা চিঠিটির অর্ধেক অংশ ছেঁড়া থাকায় লেখকের নাম জানা যায়নি।

তবে লঞ্চের কেবিনে গোলাপি রঙের জামা পাওয়া গেছে। এতে ধারণা করা হচ্ছে, চিঠির লেখক/লেখিকা অল্পবয়েসী কোনো ছেলে অথবা মেয়ে। সে লঞ্চের কেবিনে ছিল। ডুবে যাওয়ার পর সে আর বেঁচে নেই।

এছাড়া একই কেবিন থেকে মো. জুম্মন হোসেন নামে এক তরুণের জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে। পরিচয়পত্রটির নম্বর-২৬৯৩৬২৩৬৯৮১৫৩। ঠিকানা- বাড়ি নং ৪০৯, বি মাটির মসজিদ, খিলগাঁ-১২১৯।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Leave a Reply