টঙ্গিবাড়িতে তীর সংরক্ষণ বাঁধ ধ্বসে পড়ছে

কাজী দীপু : মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ি উপজেলার হাসাইল বানারী এলাকায় পদ্মা নদীর তীর সংরক্ষণ বাঁধ প্রতিনিয়ত ধ্বসে পড়ছে। এতে বর্ষা মৌসুমে ব্যাপক ভাঙনের আতঙ্কে ভুগছে বেশ কিছু পরিবার। বর্ষায় পানি বাড়লে নদীতে ঢেউ তৈরি হয়। এতে বাঁধের ব্লক সরে গিয়ে একাধিক স্থানে গভীর গর্ত তৈরি হয়ে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

এছাড়া নৌযানবাহন চলাচলের ফলে ঢেউয়ের চাপে বাঁধের মাটি ভেঙে দিন দিন প্রকট আকার ধারণ করছে।

৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে উপজেলার হাসাইল থেকে চিত্তকড়া গ্রাম পর্যন্ত নির্মিত ২.৪৪৩ কিলোমিটার বাঁধের ৬ ও ৭ নম্বর প্যাকেজের গারুরগাঁও এলাকায় ৭’শ ফিট ব্লক সম্পূর্ণ ধ্বসে গেছে।

এ প্রসঙ্গে টঙ্গিবাড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে বলেন, ‘ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের মাধ্যমে ভাঙনের খবর পেয়েছি।’

তিনি জানান, স্থানীয় ভূমি কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের সরেজমিন প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পরই বিষয়টি পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীকে জানিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হবে।

জানা গেছে, পদ্মা নদীর ভাঙনের হাত থেকে টঙ্গিবাড়ি উপজেলাকে রক্ষার জন্য ২০০৭-০৮ অর্থবছরে ৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্মাণ করা হয়। ৬টি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ১০টি প্যাকেজে ভাগ করে নির্মাণ করেন তীর সংরক্ষণ বাঁধ।

পরবর্তীতে ২০১০ সালে দুই একজন ঠিকাদার তাদের প্যাকেজ পুনরায় সংস্কার করলেও অধিকাংশ ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের প্যাকেজ সংস্কার করেনি। ফলে বাঁধের বিভিন্ন স্থানে ব্লক সরে গিয়ে গভীর গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Leave a Reply