টঙ্গীবাড়িতে ধর্ম পরিবর্তন করেও শেষ রক্ষা হলো না প্রেমিকা জান্নাতের

ধর্ম পরিবর্তন করে প্রেমিককে বিয়ে করেও শেষ রক্ষা হলো না প্রেমিকা জান্নাতের । জান্নাত এখন জেল হাজতে । সোমবার রাতে মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি উপজেলার উপজেলার বেতকা চৌরস্তা থেকে পুলিশ জান্নাত ও তার ননদ মমতাজকে আটক করে । পরে মঙ্গলবার তাদের আদালতে প্রেরণ করলে বিচারক জেল হাজতে পাঠিয়ে দেয়। এর আগে থানা হাজতেজান্নাত সাংবাদিকদের জানায়, সে স্বেচ্ছায় ধর্মান্তরিত হয়ে রবিনকে বিয়ে করে ঘর সংসার করছেন। পুলিশ জোর করে তাকে থানায় ধরে নিয়ে এসেছে। জানা গেছে, উপজেলার আবদুল্লাহপুর গ্রামের বিশ্বনাথ ভদ্রের মেয়ে সাবিত্রী রানী ভদ্র প্রেমের টানে গত ৫ই ডিসেম্বর ঘর ছেড়ে সিরাজদিখান উপজেলার হযরত আলী শেখের ছেলে রবিনকে বিয়ে করে।বিয়ের আগে সাবিত্রী ধর্ম পরিবর্তন করে নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে মুসলমান ধর্ম গ্রহণ করে নাম রাখে জান্নাত।

সাবিত্রীর পিতা বিশ্বনাথ ভদ্র বাদী হয়ে টঙ্গীবাড়ি থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করলে পুলিশ জান্নাত ও মমতাজকে আটক করে।এর আগে রবিনের বড় ভাই ও বোন জামাইকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।এ মামলায় রবিন উচ্চ আদালত হতে অন্তবর্তীকালীন জামিনে রয়েছে।

বাংলা ২৪ বিডি নিউজ
===================

টঙ্গিবাড়ীতে ধর্ম পরিবর্তন করে বিয়ে করে বিপাকে জান্নাত

ব.ম শামীম: মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলার আবদুল্লাহপুর গ্রামে প্রেমের টানে ঘর ছেড়ে হিন্দু ধর্ম পরিবর্তন করে মুসলীম ধর্ম গ্রহন করে প্রেমিক রবিনকে বিয়ে করে শেষ রক্ষা পেলো না জন্নাত। সোমবার রাতে উপজেলার বেতকা চৌরস্তা হতে পুলিশ জান্নাত ও তার ননদ মমতাজকে আটক করে মঙ্গলবার জেল হাজতে প্রেরন করছে। আটক করে থানায় নিয়ে আসার পর জন্নাত কান্নায় ভেঙ্গে পরে সাংবাদিকদের জানায়, সে স্বেচ্ছায় ধর্মান্তরিত হয়ে রবিনকে বিয়ে করে ঘর সংসার করছেন। পুলিশ জোর করে তাকে থানায় ধরে নিয়ে এসেছে।

জানগেছে, উপজেলার আবদুল্লাহপুর গ্রামের বিশ্বনাথ ভদ্র এর মেয়ে সাবিত্রী রানী ভদ্র প্রেমের টানে গত ৫ই ডিসেম্বর ঘর ছেড়ে সিরাজদিখান উপজেলার হযরত আলী সেখের ছেলে রবিনকে বিয়ে করে।

এ সময় হিন্দু ধর্মালম্বী সাবিত্রী ধর্ম পরিবর্তন করে নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে মুসলমান ধর্ম গ্রহন করে নাম পরিবর্তন করে জন্নাত রাখে ।

গত ৬ই ডিসেম্বর ২০১১ সাবিত্রীর পিতা বিশ্বনাথ ভদ্র বাদী হয়ে টঙ্গিবাড়ী থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করলে পুলিশ জান্নাত ও মমতাজকে আটক করে। এর পূর্বে উক্ত মামলায় রবিনের বড় ভাই ও বোনজামাইকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরন করা হয়।

এ মামলায় রবিন উচ্চ আদালত হতে অন্তবর্তীকালীন জামিন নিয়েছে।

Leave a Reply