শ্রীনগরে আ.লীগ-যুবলীগের পাল্টাপাল্টি জিডি: উত্তেজনা

কাজী দীপু : মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরের ভাগ্যকূল ইউনিয়নের উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতারা একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি জিডি রুজু করেছেন। শুক্রবার রাতে শ্রীনগর থানায় এ জিডি রুজু করা হয়। এনিয়ে বর্তমানে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার ভাগ্যকূল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাজী ফজলুল হকের মৃত্যুর পর চেয়ারম্যান পদে আগামী ১১ এপ্রিল উপনির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়।

এতে চেয়ারম্যান পদে কাজী ফজলুল হকের ছেলে কাজী সাহাদাত ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন মিতুল মনোনয়নপত্র দাখিল করে নির্বাচনী গণসংযোগ শুরু করেন।

দলীয় সূত্র জানায়, চেয়ারম্যান প্রার্থী কাজী সাহাদাতের পক্ষে যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংস্কৃতিক সম্পাদক ইমরান হোসেন খান, যুবলীগ নেতা ইকবাল হোসেন পিউ, আওয়ামী লীগ নেতা সামছুল আলম সবজলসহ যুবলীগ নেতাকর্মীরা শুক্রবার বিকেলে ভাগ্যকূল বাজারে নির্বাচনী প্রচারণায় যান।

সূত্র জানায়, এ সময় অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন মিতুল ও তার লোকজন যুবলীগ নেতাদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও হত্যার হুমকি দেয়।

এতে যুবলীগ নেতা ইমরান হোসেন খান বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে শ্রীনগর থানায় জিডি করেন।

অপরদিকে, চেয়ারম্যান প্রার্থী ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন মিতুলও প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে থানায় পাল্টা জিডি করেন।

শ্রীনগর থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান পাল্টাপাল্টি জিডি রুজুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, উভয় প্রার্থী সরকারি দলের নেতাকর্মী হওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হলেও অপ্রীতিকর ঘটনা প্রতিরোধে পুলিশ সতর্ক রয়েছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
================

ভাগ্যকুল ইউপিতে পুন:নির্বাচন : মুন্সীগঞ্জে দু’চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে হট্টগোল ও যুবলীগ নেতা লাঞ্ছিতের ঘটনায় পাল্টা-পাল্টি জিডি

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার ভাগ্যকুল ইউনিয়নের পুন:নির্বাচনকে সামনে রেখে যুবলীগ ও আ’লীগের দু’চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে হট্টগোল ও কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় পাল্টা-পাল্টি জিডি দায়ের করা হয়েছে। শনিবার রাতে শ্রীনগর থানায় ভাগ্যকুল ইউপি নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও স্থানীয় ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন মিতুল নিজে ও অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী ও ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী মনোয়ার হোসেন শাহাদাতের সমর্থক কেন্দ্রীয় যুবলীগের নেতা এমরান হোসেন খান ওই পাল্টা-পাল্টি জিডি দায়ের করেন।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার দুপুরে ভাগ্যকুল বাজারে চেয়ারম্যান প্রার্থী যুবলীগ নেতা কাজী মনোয়ার হোসেন শাহাদাতের পে ভোট প্রার্থন করতে গেলে কেন্দ্রীয় যুবলীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক এমরান হোসেন খান প্রতিপ চেয়ারম্যান প্রার্থী মনির হোসেন মিতুলের সমর্থকদের হাতে লাঞ্ছিত হন। এ সময় উভয় চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে হট্টগোল বাঁধে। আগামী ১১ এপ্রিল ভাগ্যকুল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে পুন:নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাজী ফজলুল হক মারা গেলে পুন:নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করা হয়। এতে যুবলীগের নেতা ও প্রয়াত চেয়ারম্যানের ছেলে কাজী মনোয়ার হোসেন শাহাদাত, আ’লীগ নেতা মনির হোসেন মিতুল ও বিএনপির শহীদুল ইসলাম খান একুল চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।

বাংলা ২৪ বিডি নিউজ

Leave a Reply