ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়কের সংস্কার নির্ধারিত সময়ে শেষ হয়নি

যানজট ॥ সেতু সচিবের পরিদর্শন
মোহাম্মদ সেলিম, মুন্সীগঞ্জ থেকে : ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ রোডে নির্মানাধিন পঞ্চবটি-মুক্তারপুর অংশের কাজ নির্ধারিত সময়ে শেষ হয়নি। তাই মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে। শুক্রবার সড়কটির কর্তৃপক্ষ সেতু বিভাগের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম ৮ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কটির বিভিন্ন পয়েন্ট ঘুরে দেখেন এবং কাজের তদারকি করেন। এ সময় তিনি প্রকল্পটি দ্রুত সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। কারণ আসন্ন বর্ষা মৌসুমের আগে এই কাজ শেষ না হলে রাস্তাটি আবার বিনষ্ট হয়ে চলাচল অযোগ্য হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। উল্লেখ্য গত বর্ষা মৌসুমের অধিকাংশ সময় এই রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়।

প্রায় ১৫ কোটি ৩৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ব্যয়ে ৮ কিলোমিটার দীর্ঘ এবং সাড়ে ১৮ ফুট প্রসস্ত এই সড়কটি সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের তত্ত্বাবধানে মাঠে কাজ শুরু করা হয় ৩ মাস আগে। ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যেই কাজ শেষ করার কথা ছিল। কিন্তু ব্যস্ত রাস্তায় বিপুল সংখ্যাক গাড়ি চলাচলের কারণে নির্ধারিত সময়ে মধ্যে কাজ শেষ করা যায়নি। এছাড়া রাস্তাটির অবৈধ দখল এবং পাইপ ড্রেন নির্মাণে বেশ সময় লেগে যায় বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।

পরিদর্শন শেষে সচিব মুক্তারপুরে সেতু বিভাগের অফিসে মতবিনিময় এক সভায় সড়ক নির্মাণ কাজ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। এ সময় সেতু বিভাগের চীফ ইঞ্জিনিয়ার কবির আহম্মেদ, জেলা প্রশাসক মো. আজিজুল আলম, সেনা বাহিনীর লে. কর্ণেল আনোয়ার হোসেন, মেজর রাশেদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মাহফুজুল হক,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আয়াতুল ইসলামসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। সেতু বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশরী সফিকুল ইসলাম জানান, কাজের ৭০ শতাংশ অগ্রগতি হয়েছে। ভিটমিন না পাওয়ার কারণে কাজে কিছুটা মন্থরতা ছিল, আগামী এপ্রিলের মধ্যে কাজ সম্পন্ন হবে।

পরে সচিব সার্কিট হাউজে পদ্মা সেতুর জন্য অধিগ্রহণকৃত ভূমির মালিকদের ক্ষতিপূরণ প্রদানে অগ্রগতি বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করেন।

Leave a Reply