পুরনো কাপড় বিক্রি করে চলছে মুক্তিযোদ্ধার সংসার

খান আবু বকর সিদ্দীক: মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ীতে মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হক (৬০) অভাবের তাড়নায় ২৫ বছর ধরে ফুটপাতে পুরনো কাপড় বিক্রি করেও সংসার চালাতে পারছেন না। অভাব মেটাতে ধরনা দিতে হয় আপনজনদের কাছে। তার বাড়ি উপজেলার বলই গ্রামে। ষাটোর্ধ্ব আবদুল হক ১৯৭১ সালের রণাঙ্গনে বিক্রমপুর এলাকায় গ্রুপ কমান্ডারের দায়িত্ব নিয়ে তিনি কয়েকবার পাক হানাদার বাহিনীর সঙ্গে বুড়িগঙ্গার তীরে মুক্তারপুরে সম্মুখযুদ্ধে অংশ নেন এবং শত্রুদের হটিয়ে দেন। যুদ্ধকালের স্মৃতি বর্ণনা করতে গিয়ে হক জানান, ৯ মাস যুদ্ধের ময়দানে থেকে অনেক না খেয়ে রয়েছি। দেশ শত্রুমুক্ত করার জন্য রাজাকারদের সন্ধান করেছি, এখনো স্বাধীন দেশে না খেয়ে দিন কাটাই, কেউ খোঁজ নেয় না। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, দেশ স্বাধীন হয়েছে; কিন্তু এখনো স্বাধীনতাবিরোধীরা এ দেশে রাজনীতি করে, গাড়িতে আগুন দেয়। ৮৭ বছর বয়সী মাসহ স্ত্রী ও ২ সন্তান নিয়ে হকের দিন ভালো যাচ্ছে না বলে তিনি জানান। স্বাধীনতার ৪ বছর পর হক পাগল হয়ে কয়েক বছর নিরুদ্দেশ ছিলেন। এখনো তিনি স্বাভাবিক নন। এলাকাবাসী জানান, দারিদ্র্যতার সঙ্গে যুদ্ধ করে তিনি প্রায়ই প্রলাপ বকেন, আবার ভালো কথা বলেন। ঢাকা থেকে পুরনো কাপড় কিনে এনে হক উপজেলার চাঁদের বাজারে ফুটপাতে বসে বিক্রি করেন, যা রোজগার হয় তা দিয়ে সংসার চলে না।

ডেসটিনি

Leave a Reply