মেঘনায় লঞ্চডুবি: গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে

মুন্সীগঞ্জের মেঘনায় লঞ্চ ডুবির ঘটনায় গ্রেফতার করা কার্গো জাহাজের মাস্টার ও চালকসহ ১২ জনকে গজারিয়া থানা পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। বুধবার সকাল থেকে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। মঙ্গলবার রাতে নারায়রণগঞ্জ থানা পুলিশ গজারিয়া থানা পুলিশের কাছে গ্রেফতারকৃতদের হন্তান্তর করে।

এরপর থেকেই গজারিয়া থানায় দায়ের করা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছেন বলে থানা সূত্রে জানা গেছে।

আটককৃতরা হলেন-মাস্টার শহীদুল ইসলাম (৫৪), চালক আমির হোসেন (৪২), সুকানি রফিকুল ইসলাম (৩৬), জাফর (২৭), শহীদ (২৫), বাবুল (২৮), নিয়ামত (১৯), নুরুজ্জামান (২৮), সানোয়ার (৩২), মোবারক আলী (২২), মনির হোসেন (৩২) ও ইউছুফ (১৯)।

উল্লেখ্য, ১৩ মার্চ রাতে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার মেঘনা নদীতে এমভি সিটি-১ কার্গো জাহাজের ধাক্কায় শরীয়তপুর-১ নামের লঞ্চটি ডুবে যায়। এতে ১৪৭ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হায়দার আলী বাদী হয়ে মামলা রুজু করেন।

গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, মঙ্গলবার রাতে গ্রেফতারকৃতদের গজারিয়া থানায় হস্তান্তর করার পর থেকে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

তিনি আরও জানান, ১২ জনকে গ্রেফতার করা হলেও তারা সবাই ঘটনার সঙ্গে জড়িত নেই। তাই জিজ্ঞাসাবাদে জড়িতদের সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

প্রসঙ্গত, ঘটনার ৩৪ দিন পর কোস্টগার্ড ও পুলিশ সদস্যরা যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে চাঁদপুরের মেঘনা নদীর মোহনা থেকে এমভি সিটি-১ নামের ঘাতক জাহাজটি আটক করে। এ সময় ১২ জনকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের নারায়ণগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Leave a Reply