মুন্সীগঞ্জে পালিত হচ্ছে আংশিক হরতাল

কাজী দীপু: বিএনপির ডাকা হরতাল মুন্সীগঞ্জে আংশিক পালিত হচ্ছে। শহরের উত্তরাংশে দোকাটপাট বন্ধ থাকলেও দক্ষিণাংশের দোকানপাট খুলতে শুরু করেছে ব্যবসায়ীরা। রিকশা, স্কুটার ও ব্যাটারি চালিত অটোরিকশাগুলো চলাচল করছে। শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশ মোতায়েন থাকলেও সকাল সাড়ে ৭টা পর্যন্ত রাজপথে হরতালের সমর্থনে কোন পিকেটার দেখা যায়নি।

গোয়েন্দা সদস্য জসিমউদ্দিন জানান, হরতালের সমর্থনে পিকেটাররা এখনও রাজপথে নামেনি। রিকশা, স্কুটার ও ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চলাচল করছে। তবে যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।

অন্যদিকে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়ক ও ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে দূরপাল্লার কোনো যানবাহন চলাচল করছে না বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

ভবেরচর হাইওয়ে পুলিশের সার্জেন্ট আরিফ জানান, মহাসড়কের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

অন্যদিকে শনিবার রাতে শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তিনজন বিএনপি কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।

তবে সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাসার তাৎক্ষণিকভাবে আটকদের নাম জানাতে পারেননি।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
================

মুন্সীগঞ্জে আংশিক হরতাল পালিত

মুন্সীগঞ্জে আশিংক হরতাল পালিত হয়েছে। সকাল সন্ধ্যার হরতালে শহরে হরতাল সমর্থনে খুব একটা পিকেটিং দেখা যায়নি। শহরের বেশিরভাগ দোকানপাট খোলা রাখতে দেখা যায়। তবে বিএনপির কট্টর সমর্থকদের বিপনী বিতান গুলো বন্ধ ছিল। জেলা বিএনপির সভাপতির বাড়ির মুক্তারপুরে সকল দোকানপাট বন্ধ দেখা যায়। কিন্তু সেখানকার বিএনপির নেতাদের সুতার মিলে প্রতিদিনের মতো শ্রমিকদের কাজ করতে দেখা গেছে। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কৃষি ব্যাংক এলাকায় পিকেটাররা একটি রুটির গাড়ি ভাংচুর করে। দুপুর ১২টার দিকে হরতালের সমর্থনে জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল হাই শহরে মিছিল বের করার চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়। এর ফলে আব্দুল হাই সেখানে কিছুক্ষণ অবস্থান করে পরে মুক্তারপুর চলে যায়।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল বাসার জানান, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে মিছিল করতে দেওয়া হয়নি।

মুন্সিগঞ্জ নিউজ

Leave a Reply