বেতকা ইউনিয়নে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ : ১২ সন্ত্রাসী জেল হাজতে

মুন্সীগঞ্জের বেতকা ইউনিয়নের চর ছটফটিয়া গ্রামে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া ১২ জনকে শনিবার জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এরা হলেন-লোকমান (৪০) আমানউল্লাহ (৫২), মেহেদী (৩০), সখিনা (৪০), শরিফ (৩১), আহসানউল্লাহ (৪৫), মোহাব্বত আলী (৪৬) মিনাল (৩৪), মতিউর (৩৬), কামালউদ্দিন (৫২),ইয়াসিন (৪৬) ও লিটন। এর আগে শুক্রবার রাতে তাদের বিরুদ্ধে জয়নাল বেপারী বাদী হয়ে টঙ্গীবাড়ি থানায় মামলা দায়ের করেন। তাদের শনিবার আদালতে পাঠানো হলে বিচারক তাদের জামিন না মঞ্জুর না করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। অন্যদিকে সংঘর্ষে দুই পক্ষ পাল্টাপাল্টি হামলা চালালেও আমানুল্লাহ বেপারীর পক্ষে টঙ্গীবাড়ি থানা পুলিশ মামলা না নেওয়ায তারা আদালতে মামলা রুজু করার প্রস্ততি নিচ্ছে বলে জানা গেছে।

টঙ্গীবাড়ি থানার এসআই খালিদ হোসেন জানান, সংঘর্ষের পর পুলিশের অভিযানে উদ্ধার হওয়া ১টি একনলা বন্দুক ও ১টি রিভলবারসহ ১৬ রাউন্ড গুলি লাইসেন্স করা। যাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে তারা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র থানায় দাখিল করেছে। তিনি আরও জানান, ঘটনার পর গ্রেফতারকৃতরা দায়ের করা মামলার আসামী। এ কারনে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। উল্লেখ্য, জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে শুক্রবার সকালে টঙ্গীবাড়ি উপজেলার বেতকা ইউনিয়নের চরছটফটিয়া গ্রামে জয়নাল বেপারী ও আমানউল্লাহ গ্র“পের মধ্যে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় উভয়পক্ষই আগ্নেয়াস্ত্র ও ধারালো অস্ত্র ব্যবহার করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ১টি একনলা বন্দুক, ১টি রিভলবার ও ১৬ রাউন্ড গুলিসহ ১২ জনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতরা সবাই আমানউল্লাহ বেপারী গ্র“পের বলে জানা গেছে।

বাংলা ২৪ বিডি নিউজ

Leave a Reply