নুরু মিয়াকে পঙ্গু করার পরও থেমে নেই চাঁদাবাজদের অত্যাচার

ফিরোজ আলম বিপ্লব: মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী উপজেলার যশলং ইউনিয়নের দরজার পার গ্রামের নুরু মিয়া চাঁদা না দেওয়ায় চাঁদাবাজরা তার পা পঙ্গু করে দিয়েই ক্ষান্ত হননি এখোনো চলছে তার উপর বিভিন্ন অত্যাচার।

বাদীর এজাহার সূত্রে জানা যায়, দরজার পার গ্রামের মৃত হাজী রুস্তম মোল্লার ছেলে নুরু মোল্লার কাছ থেকে ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে স্থাণীয় সন্ত্রাসী আব্দুল রাজ্জাক, মফিজুল বকাউল, শাখাওয়াত সর্দার,রিপন সর্দার,আরশাদ খাঁ সহ আরো ১৩/১৪ জন। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় নুরু মিয়া তার দোকানের মাল কিনার উদ্দেশ্যে গত ১৯ই ফেব্রয়ারী ২০১১ তারিখ সকালে ঢাকা যাওয়ার পথে দরজার পাড় মসজিদের পাশে উক্ত চাঁদাবাজরা তাকে দা ও রড দিয়ে কুপিয়ে ডান পা ভেঙ্গে ফেলে । এ ঘটনায় তার ভাই ইমান মোল্লা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে। মামলাটি বিজ্ঞ জুডিশিয়াল মেজিষ্ট্রেট আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। বর্তমানে স্ত্রী ও তিন কন্যা নিয়ে পঙ্গু হয়ে অসহায় অবস্থায় দিন যাপন করছেন। । প্রকাশ্যে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকী দিচ্ছে উল্লেখিত চাঁদাবাজরা। উক্ত মামলাটি নুরু মিয়ার ভাই ইমান মোল্লা বাদী হওয়ায় তাকেও গত ১৯ ই জানুয়ারী ২০১২ তারিখে সন্ধায় শনির বাড়ির সামনে একা পেয়ে চাদাঁবাজরা মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকী দেয় এবং বলে মামলা তুলে না নিলে তোকেও তোর ভাইয়ের মতো পঙ্গু করে ফেলবো। এ ব্যাপরে ২০ জানুয়ারী ২০১২ তারিখে টঙ্গীবাড়ী থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন সে। নুরু মিয়া সাংবাদিকদের জানান,তার ক্রয় করা ১০ শতাংশ জমি সন্ত্রাসীর দখল করার পায়তারা চেষ্টা চালাছে। এ ব্যাপরেও থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।#

Leave a Reply