ডায়রিয়া : এক সপ্তাহে আক্রান্ত চার শতাধিক

অসহনীয় তাপদাহে মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলা শহর ও গ্রামাঞ্চলে ডায়রিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে। গত এক সপ্তাহে জেলা শহর ও শহরের বাইরের গ্রামগুলোতে ডায়রিয়া আক্রান্ত হয়েছেন চার শতাধিক। এদের বেশির ভাগই শিশু। আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে একমাত্র সরকারি হাসাপাতাল কর্তৃপক্ষকে। ১০০ শয্যার মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাওয়া যাচ্ছে না কলেরা স্যালাইন। এ কারণে সংকট দেখা দিয়েছে খাবার স্যালাইনেরও। রোগীদের দাবি কলেরা ও খাবার স্যালাইন ছাড়াও ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার ওষুধের সংকট রয়েছে এখানে। সদর উপজেলার চরকেওয়ার, আধারা, মোল্লাকান্দি, শিলই, বাংলাবাজার ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে ডায়রিয়ার প্রকোপ বেশি। হাসপাতালে আসা রোগীদের বেশির ভাগই এসব অঞ্চলের। চরকেওয়ার ইউনিয়নের ছোট মোল্লাকান্দি গ্রামের সবুরা খাতুন জানান, তার সন্তানকে তিনি হাসপাতালে ডাক্তার দেখিয়েছেন ঠিকই। কিন্তু কোনো ওষুধ পাননি।

এ ব্যাপারে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. কামরুল করীম বলেন, ডায়রিয়া রোগীদের সুচিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। পর্যাপ্ত ওষুধ দেওয়ার প্রচেষ্টা করা হচ্ছে। প্রচণ্ড গরমে ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে শিশুরা এ রোগে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। তাই শিশুদের প্রতি মায়ের অধিক যত্নবান ও খাবার-দাবারের প্রতি খেয়াল রাখার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশ প্রতিদিন

Leave a Reply