সরকারি দমননীতি গণতন্ত্রকে হুমকির মুখে ফেলছে : বি চৌধুরী

বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট ও সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক ড. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, সরকারি দমননীতি গণতন্ত্রকে হুমকির মুখে ফেলছে। বিএনপির অনেক কেন্দ্রীয় নেতাকে কারাগারে রাখা সরকারের সঠিক আচরণ নয়।

তিনি বলেন, ইলিয়াস আলীর গুম হওয়া, মাঝে মধ্যে বিভিন্নজনের গুম হওয়ার ঘটনাও অাশঙ্কাজনক। সাংবাদিক দম্পতি হত্যার বিচার না হওয়াটাও সরকারের ব্যর্থতা। সেই সঙ্গে পুলিশি দমন-পীড়ণ কোনো ভাবেই মানা যায় না।

শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর রমনা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বিকল্পধারা বাংলাদেশ এর ৮ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে আমার দল গঠন করেছিলাম । সে সময়ে আমাদের দমন করার চেষ্টা করা হয়েছিলো। এখনো হচ্ছে । কিন্ত এভাবে কোনো গণতান্ত্রিক শক্তিকে শেষ করা যায় না। এদেশের মানুষ তৃতীয় শক্তির অপেক্ষা করছে। বিকল্পধারা অাজীবন জনগণের জন্য কাজ করবে।’

অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, ‘বড় দুই দল চায় না, আর কোনো শক্তির উত্থান হোক। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় বসে যখন বিরোধী দলের প্রতি দমন-নিপীড়ণ চালাচ্ছে, বিএনপি অপেক্ষা করছে, ক্ষমতায় এসে আমরা এর প্রতিশোধ নেবো। এ পরিস্থিতিতে তৃতীয় রাজনৈতিক শক্তির উত্থান অপরিহার্য হয়ে পড়েছে।’

বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বিকল্পধারাকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, বর্তমানে ভারতের সঙ্গে বন্ধুত্বের চেয়ে বেশি কছু হচ্ছে।সরকারের উচিত দেশের স্বার্থ রক্ষা করা। লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশের গণতন্ত্র আজ পুলিশের বুটের তলায় । চরমভাবে ভুলুন্ঠিত হচ্ছে মানবাধিকার। এভাবে জেল, গুম, হত্যা চললে দেশে গণতন্ত্র থাকবে না।’

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, বিকল্পধারা বাংলাদেশের মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান, যুগ্ন মহাসচিব মাহী বি চৌধুরী, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, ফরোয়ার্ড পার্টির সভাপতি মোস্তফা আমিন, গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু প্রমুখ।

Leave a Reply